Tag Archives: নির্বাচন

দলীয় সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব: টিআইবি

আওয়ার ইসলাম: ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) বলেছে, দলীয় সরকারের অধীনেও নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব।

দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন নিয়ে বিভিন্ন পক্ষের অভিযোগ থাকলেও টিআইবি আজ এমন মতামত দিলো।

সোমবার (১৭ সেপ্টেম্বর) টিআইবি কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন সংগঠনটির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান।

বাংলাদেশ নির্বাচন

সংবাদ সম্মেলনে ‘রাজনৈতিক দলের নির্বাচনী ইশতেহারে সুশাসন ও শুদ্ধাচার’ শীর্ষক প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের নিরপেক্ষতা নিয়ে সংশয় থাকা মানেই এটা যে, দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন নিরপেক্ষ হবে না। টিআইবি মনে করে, দলীয় সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব, যদি রাজনৈতিক দল ও অন্যান্য স্টেকহোল্ডাররা সহায়ক ভূমিকা পালন করে।

তিনি বলেন, নির্বাচনে বিজয়ী হতে না পারলে নির্বাচন অগ্রহণযোগ্য, এমন প্রবণতা আমাদের মধ্যে রয়েছে। এর জন্যই দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের গ্রহণযোগ্যতা বা আস্থাহীনতার সঙ্কট তৈরি হয়।

তবে বাস্তবতা হলো তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিধান যেহেতু সাংবিধানিকভাবে বাতিল হয়েছে, তাই সাংবিধানিক পন্থায় যেভাবে বৈধ, সেভাবে নির্বাচন করতে হবে। পৃথিবীর অন্যান্য অনেক দেশে দলীয় সরকারে নিরপেক্ষ নির্বাচনের নজির আছে।

সম্পূর্ণ ফিতে নিন অ্যাকাউন্টিং ও ইনভেস্টরি সফটওয়ার

খালেদা জিয়া কারামুক্ত না হলেও নির্বাচনে যাবে বিএনপি

হামিম আরিফ: দীর্ঘদিন ধরেই রাজনীতিতে বিষয়টি চলমান। বিএনপি খালেদা জিয়াকে ছাড়া নির্বাচনে যাবে কিনা। দলটি বরাবরই এবিষয়ে নেতিবাচক মন্তব্য দিয়ে আসলেও সম্প্রতি এ বিষয়ে ইতিবাচক ইঙ্গিত পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, দলটির সিনিয়র একটি অংশ মনে করছে যেকোনো মূল্যে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়া দরকার। তা না হলে দলের জনপ্রিয়তায় প্রচুর ঘাটতি দেখা দেবে। সেটি হিতে বিপরীত হতে পারে। আর এ কারণে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে প্রয়োজনে কারাগারে রেখে হলেও নির্বাচনে যেতে হবে।

জানা যায়, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানও এমন মত পোষণ করেন। আর গোপন সূত্রে জানা যাচ্ছে তিনি দলের মহাসচিবকে সব প্রতিকূলতা উপেক্ষা করে নির্বাচনে প্রস্তুতির নির্দেশ দিয়েছেন।

বিএনপি সময় অসময়

দলটির একাধিক সূত্র বলছে, লন্ডনে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানের সঙ্গে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে আসন্ন একাদশ জাতীয় নির্বাচন, নির্বাচনে অংশ নেওয়া এবং চলমান আন্দোলন সম্পর্কে আলোচনা হয়।

বৈঠকে যেকোনো মূল্যে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার নির্দেশনা দেন তারেক রহমান। নির্বাচনের আগে কারাবন্দি খালেদা জিয়ার মুক্তি না হলে প্রয়োজনে তাঁকে কারাগারে রেখেই নির্বাচন করার নির্দেশও দেন তিনি।

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার পাশাপাশি সরকারবিরোধী আন্দোলনের প্রস্তুতি রাখার জন্যও ওই বৈঠকে মির্জা ফখরুলকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া জাতিসংঘের রাজনীতিবিষয়ক সহকারী মহাসচিবের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়েও তারেককে অবহিত করেন ফখরুল।

তারেক রহমান লন্ডনে অবস্থান করলেও তার নির্দেশনায় দল পরিচালিত হয়ে আসছে। তাই নির্বাচন নিয়ে তার বক্তব্যই চূড়ান্ত বলে মনে করে নেতারা।

বৈঠকে ২০ দলীয় জোটসহ উদারপন্থী দলগুলোর সঙ্গে ঐক্যের অগ্রগতি নিয়ে আলোচনায় হয়। যত দূর সম্ভব সমন্বয় করে ঐক্য গড়ার তাগিদ দেন তারেক রহমান। ঐক্য না হলে ২০ দলের সঙ্গে আসন ভাগাভাগি করে ৩০০ আসনে মনোনয়ন চূড়ান্ত করার নির্দেশও দেন তিনি।

নিউইয়র্ক, জাতিসংঘ ও লন্ডন ঘুরে রোববার সন্ধ্যায় ঢাকায় পৌঁছেছেন বিএনপি মহাসচিব। তবে এখন পর্যন্ত সফর নিয়ে কোনো আনুষ্ঠানিক মতামত প্রকাশ করেননি তিনি।

গত ১৩ সেপ্টেম্বর নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের রাজনীতিবিষয়ক সহকারী মহাসচিব মিরোস্লাভ জেনকার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন মির্জা ফখরুলসহ বিএনপির প্রতিনিধি দল। সেখান থেকে তিনি লন্ডন সফর করেন। তারেকের সঙ্গে বৈঠক শেষে ওই দিনই রাত ৮টায় এমিরেটস বিমানের একটি ফ্লাইটে বাংলাদেশের পথে রওনা হন তিনি।

আগামী নির্বাচন নিয়ে সফরটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ ছিল দলটির জন্য।

ছাত্রলীগ ছাত্রদল নেতার অন্যরকম কুলাকুলি

সম্পূর্ণ ফিতে নিন অ্যাকাউন্টিং ও ইনভেস্টরি সফটওয়ার

অক্টোবরেই নির্বাচনকালীন সরকার ও প্রার্থী চূড়ান্ত: কাদের

আওয়ার ইসলাম: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য অক্টোবরে নির্বাচনকালীন সরকার গঠন ও দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

মঙ্গলবার সকালে সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আসন্ন নির্বাচনে দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নিয়ে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নির্বাচনকালীন সরকারে বাইরের কেউ বা টেকনোক্র্যাট কেউ আসবেন না। ওই সরকারের আকার ছোট হবে। গতবারের মতোই নির্বাচনকালীন সরকারের আকার হবে।’

তিনি বলেন-,দলের মধ্যে যারা নবীন তারা যদি জনপ্রিয়তায় এগিয়ে থাকেন, তবে তারা অবশ্যই প্রায়রিটি পাবেন।

তিনি আরও বলেন- গতবার আমরা যাদের মনোনয়ন দিয়েছিলাম, এরমধ্যে যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে, যারা জনগণের কাছে তাদের বা তাদের আশপাশের লোকের জন্য অসুবিধায় পড়েছেন, তাদের মধ্যে নবীনের সংখ্যাও একেবারে কম নয়।

মনোনয়ন প্রত্যাশীদের ব্যাপারে দলীয় সিদ্ধান্ত নিয়ে তিনি বলেন- মনোনয়ন প্রত্যাশীদের উঠান বৈঠক ও গণসংযোগ করে মানুষের কাছে সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরতে হবে। আরও ভালোভাবে কাজ করলে আপনার মনোনয়ন পাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে; এধরনের আভাস-ইঙ্গিত আমাদের লিডার, দলপ্রধান শেখ হাসিনা হয়তো কাউকে কাউকে দিয়েছেন। কিন্তু কারও মনোনয়ন শিওর এরকম কোনও আশ্বাস এখনও কাউকে দেয়া হয়নি।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসা সম্পর্কে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তার চিকিৎসার চেয়ে অসুস্থতা নিয়ে বিএনপি রাজনীতি করছে। তার অসুস্থতাকে বিএনপি নেতারা ইস্যু বানাতে চায়। ওনার চিকিৎসা দরকার হলে সর্বোচ্চ ভালো চিকিৎসা যেখানে হবে, সেখানেই নেওয়া হবে।’

এসে গেল যাদুকরী মাদরাসা ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার

আরও পড়ুন:  সংসদে উত্থাপিত কওমি সনদের স্বীকৃতির বিলে কী আছে?

আপনার ব্যবসাকে সহজ করুন। – বিস্তারিত জানুন

-আরএম

‘নির্বাচন সামনে রেখে ইসলামি দলগুলোর ঐক্য হলে বড় কিছু ঘটবে’

মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী। ইসলামবাগ মাদরাসার প্রিন্সিপাল ও শায়খুল হাদিস। মাদরাসা ও ওয়াজের মাঠে খিদমতের পাশাপাশি দীর্ঘ দিন ধরে সম্পৃক্ত বাংলাদশের অন্যতম ইসলামি রাজনৈতিক দল জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সঙ্গে।

বর্তমানে তিনি দলটির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর সভাপতি। এছাড়াওজাতীয় ইমাম সমাজ বাংলাদেশের সিনিয়র সহ-সভাপতি তিনি। নির্বাচনি রাজনীতিতে সরব মাওলানা আফেন্দী। সব ঠিক থাকলে ২০ দলীয় জোটের হয়ে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি নীলফামারী থেকে অংশ নেবেন।

জমিয়ত ও আলেমদের রাজনীতি ও নির্বাচন প্রসঙ্গে তার সাক্ষাৎকার নিয়েছেন মাহমুদুল হাসান। 

আওয়ার ইসলাম: বাংলাদেশের ইসলামি রাজনীতির ভবিষ্যত কী?

মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী: বাংলাদেশে আমরা যারা ইসলামি রাজনীতি করি, আমাদের লক্ষ্য উদ্দেশ্য হলো আল্লাহর জমিনে আল্লাহর দীন প্রতিষ্ঠা করা। আমরা আল্লাহকে সন্তুষ্ট করার জন্যই ইসলামি রাজনীতি করে থাকি।

ভবিষ্যতের সফলতা আল্লাহ রাব্বুল আলামিন দান করবেন। আমরা আশা করি আল্লাহ তায়ালা আমাদের আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় এ দেশে ইসলামি নেজাম প্রতিষ্ঠিত করবেন। এ দেশের মানুষ ইসলামি শাসন ব্যবস্থা ও আল্লাহর নেজামের সুফল ভোগ করবে ইনশাআল্লাহ। আমরা সেটি মন থেকে বিশ্বাস করি।

আওয়ার ইসলাম: আলেম রাজনীতিকদের এ সম্মিলন তো আসলে থাকছে না। কিছুদিন আগেও জমিয়ত ভাঙনের মুখে পড়েছে…

মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী: বাংলাদেশের একটি বড় দল জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম। এরকম একটি দলে ভাঙন বা ফাঁটল অস্বাভাবিক কিছু না।

নানান ঘাত-প্রতিঘাত আসবে, সবকিছু মোকাবিলা করেই লক্ষ্যে পৌঁছবার জন্য সামনে এগিয়ে যেতে হবে আমাদের। মূল বিষয়ে বলতে গেলে আমাদের দলের নির্বাহী পদটি নিয়ে সমস্যার সূত্রপাত হয়েছিলো।

আমরা নিরাশ নই। ইনশাআল্লাহ আল্লাহ চাহে তো এসব সমাধান হয়ে যাবে।

আওয়ার ইসলাম: আগামী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি শুরু করেছেন কিনা?

মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী: হ্যাঁ, আলহামদুলিল্লাহ আগামী নির্বাচনের জন্য বেশ ভালো প্রস্তুতি রয়েছে আমাদের। আমাদের কর্মীরা সক্রিয় ভূমিকা পালন করছে নিজেদের এলাকায়।

যেহেতু ইসলামি রাজনীতির বৃহত্তম একটি দল জমিয়ত এবং সবচেয়ে প্রচীন ও পুরোনো একটি দল, সে হিসেবে বাংলাদেশের অধিকাংশ আলেম উলামা এতে সম্পৃক্ত। সে সুবাদে বাংলাদেশের সবগুলো জেলায় আমাদের অবস্থান ভালো। সারাদেশে প্রায় শক্তিশালী ৫০টি আসন টার্গেট করে আমাদের নির্বাচন প্রস্তুতি চলছে।

আওয়ার ইসলাম: আপনি দীর্ঘ দিন ধরে ইসলামি রাজনীতিতে সক্রিয়। তো ইসলামি রাজনীতির ক্ষেত্রে আপনি কাকে আদর্শ মানেন? কার চিন্তা চেতনায় অগ্রসর হচ্ছেন?

মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী: আমাদের আকাবির আসলাফদের আমরা রাজনীতির আদর্শ হিসেবে মনে করি।

তবে আমরা বিশেষ করে ইসলামি রাজনীতির সিপাহ সালার শায়খুল আরব ওয়াল আজম শায়খুল ইসলাম হুসাইন আহমদ মাদানি রহ. কে আমাদের আদর্শ হিসেবে মনে করি। তার ত্যাগ ও কুরবানিকে আমরা আমাদের রাজনীতির পাথেয় মনে করি।

আওয়ার ইসলাম: বাংলাদেশের রাজনীতিতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি শীর্ষস্থানে রয়েছে। কিছু মানুষ মনে করে দল দুটি ইসলামি রাজনীতিকে সময়ে সময়ে অপব্যবহার করে থাকে। বিষয়টি কিভাবে দেখেন?

মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দি: বাংলাদেশের বড় দলগুলো ছোট দলগুলোকে কাছে টানতে চাইবে এটাই স্বাভাবিক। তবে কাছে টেনে তাদের যদি মিসগাইড করে তাহলে এর থেকে বাঁচার দায়িত্ব নিজেদের।

এ ক্ষেত্রে সতর্কাতা জরুরি। তবে জমিয়তে উলামায়ে ইসলামকে কেউ মিসগাইড করার চেষ্টা করতে পারবে না। অতীতে জমিয়তকে কোনো বড়দল মিসগাইড করছে বলেও আমি মনে করি না।

আবার কোনো বড় দল আমাদের দলে এমন কোনো প্রভাবও বিস্তার করেনি যে আমরা আমাদের ইতিহাস ঐতিহ্য ভুলে যাবো বা আমাদের আদর্শ থেকে পিছু হঠবো।

আমরা আমাদের স্বকিয়তা কোনোভাবেই হারাবো না ইনশাআল্লাহ। আমরা কারো লেজুরভিত্তিক রাজনীতি করি না। আমরা মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের জন্যই রাজনীতি করি।

ভিজিট ও সাবস্ক্রাইব করুন আওয়ার ইসলাম টিভি

কোনো মানুষকে খুশি করার জন্যও রাজনীতি করি না। আমরা আমাদের চেষ্টা করে যাবো আর সফলতা দিবেন আল্লাহ তায়ালা।

রাজনীতির কারণে নয় বরং কৌশলগত কিছু কারণে আমরা কারো সঙ্গে সম্পর্ক রাখি এটা অবশ্য দলের স্বার্থে।

আওয়ার ইসলাম: বাংলাদেশের ইসলামি দলগুলো অধিকাংশ দেখা যায় মাদরাসা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান নির্ভর, এ গুটিকতক মানুষের দ্বারা দেশ ও সামাজের পরিবর্তন কী আশা করা যায়?

মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী: দেখেন নীতিগত দিক থেকে আমি এ প্রশ্নটির সঙ্গে একমত হতে পারছি না। কারণ প্রশ্নটি ঠিক নয়। ইসলামি দলগুলো এমন আমি মনে করি না।

আমি আমার দলের ব্যাপারে বলি, দেখেন আমার দল এমন কোনো রাজনীতি করে না যা শুধু মাদরাসা নির্ভর। বরং আমি ২০০১ থেকে আমার এলাকায় নির্বাচন করে আসছি সেখানে কয়টা মাদরাসা আছে। কিন্তু আমাকে মানুষ ভোট দিয়ে আসছে।

আমরা কোনো নির্ভরতার রাজনীতি করি না। আমি ইতোপূর্বে নির্বাচন করেছি নীলফমারীর ডোমার ডিমলা আসনে। সেখানকার সাধারণ মানুষ আমাদের সঙ্গে আছেন।

আওয়ার ইসলাম: নির্বাচনের স্বার্থে যদি ইসলামি দলগুলো একত্রিত হয় তাহলে সংসদে বেশ কিছু আসন পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তারপরও কেনো ইসলামি দলগুলো একত্রিত হচ্ছে না?

মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দি: চমৎকার একটি প্রশ্ন করেছেন। বাংলাদেশে এমনটাই হওয়া উচিৎ। নির্বাচনকে সামনে রেখে ইসলামি দলগুলো যদি এক হয়, একতাবদ্ধ হয়, এক প্ল্যাটফর্মে এসে একত্রিত হয় তাহলে এদেশে অনেক কিছুই ঘটবে।

বিশেষ করে বর্তমান সময়ে আলেম উলামা ও ইসলামি রাজনৈতিক শক্তি সকল মহলের কাছে একটা বড় ফ্যাক্ট। এ জায়গাটাতে যদি সংসদে ভূমিকা রাখার ক্ষেত্রে আমরা এক হতে পারি তাহলে ভিন্ন কিছু ঘটবে।

কিন্তু এমনটা ঘটছে না। এজন্য আমরা হতাশ নই। আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। ইনশাল্লাহ একদিন সেটি বাস্তবায়ন হবে।

(সাক্ষাৎকারটি গত রমজানে নেয়া। শ্রুতি লিখন আবদুল্লাহ তামিম) –আরআর

বিসফটি – বিস্তারিত জানুন

আগামী নির্বাচনেও অনিয়ম হতে পারে: সুজন

আওয়ার ইসলাম: সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার বলেছেন,  ইসির বক্তব্যে বোঝা যায় আগামী নির্বাচনও নিয়ন্ত্রিত হবে।

তিনি বলেন, নির্বাচনে যে অনিয়ম হচ্ছে তাকে একটি স্ট্যান্ডার্ড পর্যায়ে নেয়া হয়েছে। এটি অব্যাহত থাকলে আগামী নির্বাচনেও অনিয়ম দেখা যাবে।

বুধবার (৫ সেপ্টেম্বর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ‘রাজশাহী ও সিলেট সিটি করপোরেশনে কেমন জনপ্রতিনিধি পেলাম’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বদিউল আলম মজুমদার বলেন, বর্তমান কমিশন এরই মধ্যে বিভিন্ন প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছে। পাঁচ সিটি নির্বাচন তারা সুষ্ঠু করতে পারেনি।

ইভিএম নিয়ে তিনি বরেন, হঠাৎ করে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) কেনার তোড়জোড় সন্দেহজনক মনে হচ্ছে। সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আর মাত্র দেড়মাস বাকি। এখন ইভিএম কিনে ব্যবহারের প্রশিক্ষণ দেওয়ার সময় কোথায়?

সুজনের কেন্দ্রীয় সমন্বয়কারী দিলীপ কুমার সরকার বলেন, ইভিএম বুথে ভোট দেওয়ার জন্য কেন্দ্রে একজন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারের কাছে সুইচ থাকবে। তিনি সুইচ টিপ দেওয়ার পর ভোট দিতে পারবেন। তখন অফিসার যদি একাধিকবার সুইচ টিপ দেন, তাহলে একজন ভোটারই একাধিক ভোট দিতে পারবেন।

সুতরাং নির্বাচনকালীন সময়ে দায়িত্ব পালনকারী কর্মকর্তাদের নিরপেক্ষতা না থাকলে ইভিএম মেশিন দিয়েও ভোট কারচুপি করা সম্ভব।

এখানে বিচার পাবো না, যতদিন ইচ্ছা সাজা দিন: খালেদা জিয়া

-আরআর

‘বিএনপিকে নির্বাচনে চায় না সরকার, তবে আমরা নির্বাচন করবো’

আওয়ার ইসলাম: সরকার না চাইলেও বিএনপি নির্বাচনে যাবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, বেগম জিয়াকে মুক্ত করেই বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে।

রোববার দুপুরে স্বেচ্ছাসেবক দলের ৩৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মাজারে পুস্পার্ঘ অর্পণের পর তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপি নির্বাচনে আসুক, সেটি আওয়ামী লীগ চায় না বলেই তারা নানা অজুহাতে বাধা সৃষ্টি করছে। তবে যত বাধাই তৈরি করুক না কেন, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি।

ব্যবসার হিসাব নিকাশ এখন হাতের মুঠোয়- ক্লিক

তিনি বলেন, বিএনপির নেতাকর্মীরা এমন শপথই নিয়েছে। বিএনপিকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখতে সরকার বিভিন্ন কৌশল করছে। আর সে জন্য একেক সময় একেক ধরনের কথা বলে।

তিনি আরও বলেন, বিএনপির হাতে তো স্টিয়ারিং নেই। স্টিয়ারিং তো তাদের (বর্তমান সরকারের) হাতে। এক-এগারোর সরকার তো আওয়ামী লীগই এনেছিল। অবৈধ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে এক-এগারোর সরকারকে বৈধতা দিয়েছিল। সুতরাং সেই এক্সপেরিয়েন্স তাদেরই আছে। এক-এগারোর ষড়যন্ত্র যদি আচ পাওয়া যায় তাহলে সেটা তারাই করছে।

‘মাদক নিয়ন্ত্রণে দেশের মাজারগুলোতে তল্লাশির আহ্বান আলেমদের’

বিএনপি না এলে এককভাবে নির্বাচন করবে জাপা

-আরআর

 

নির্বাচনে অনিয়ম হবে না সে নিশ্চয়তা দেয়া যায় না: সিইসি

আওয়ার ইসলাম: পাবলিক নির্বাচনগুলোতে অনিয়ম হবে না সে নিশ্চয়তা দেয়া যায় না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নূরুল হুদা।

তিনি বলেছেন, বড় বড় পাবলিক নির্বাচনে কিছু কিছু অনিয়ম হয়ে থাকে আমরা সেগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নিয়ে থাকি। বরিশালে বেশি অনিয়ম হয়েছে সেখানে আমরা বাড়তি ব্যবস্থা নিয়েছি।

বুধবার (০৭ আগস্ট) নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট ভবনে সাংবাদিকদের এসব কথা বলের তিনি।

সিইসি বলেন, এখন পর্যন্ত দেশে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরিবেশ বিদ্যমান রয়েছে।

নির্বাচন কমিশনের প্রতি জাতির আস্থা নেই ড. কামাল হোসেনের এমন মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, কোন জাতি তাকে কি বলেছে আমি জানি না। একটা কথা বললে তো তার একটা পরিসংখ্যান দরকার। জাতি কি তাকে বলেছে নির্বাচন কমিশনের ওপর আমাদের আস্থা নেই? এ সম্পর্কে আমি তো কিছু জানি না। বিএনপিসহ স্টকহোল্ডারদের সমালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশন অস্বস্তিতে নেই বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, গত পাঁচটি সিটি করপোরেশন নির্বাচনে যেখানে যত বেশি অনিয়ম হয়েছে আমরা সেখানে তত বেশি অ্যাকশন নিয়েছি। এ ধরনের পাবলিক নির্বাচনে কিছু অনিয়ম হয়। জাতীয় নির্বাচনেও এমন অনিয়ম হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা মনে করি না যে, জাতীয় নির্বাচনে এমন কোনো অসুবিধা হবে। কোনো অনিয়ম হবে না এরকম নিশ্চয়তা দেওয়ার সুযোগ আমাদের নেই। তবে যেভাবে নিয়ন্ত্রণ করা দরকার সেভাবে আমরা নিয়ন্ত্রণ করবো।  নির্বাচনের পরিবেশের সুব্যবস্থা আছে। আমরা কোনো অসুবিধা দেখি না।

তিনি বলেন, সংসদ নির্বাচন ডিসেম্বরের শেষে অথবা জানুয়ারির প্রথমে অনুষ্ঠিত হবে। আমরা অক্টোবরের শেষে তফসিল ঘোষণা করবো। সংবিধান অনুযায়ী ২২ জানুয়ারির মধ্যে নির্বাচনের বাধ্যবাধকতা রযেছে। এ আয়োজনে যৌথভাবে অংশ নিচ্ছে আন্তর্জাতিক সংস্থা আইএফইএস। প্রতিবন্ধীরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে গেলে কী কী সমস্যার সম্মুখীন হন, যারা দৃষ্টি প্রতিবন্ধী তাদের জন্য আলাদা ব্যালট পেপার ছাপানো যায় কি না? এসব বিষয়ে ২০/২৫ জন প্রতিবন্ধীকে নিয়ে এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে।

স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া, তিন সন্তানকে ব্রিজ থেকে ফেলে দিলেন বাবা

আরএম/

‘ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখাই নতুন সরকারের লক্ষ্য’

আওয়ার ইসলাম: ভারত এক কদম এগোলে, আমরা দু’কদম এগিয়ে যাব। আমাকে বলিউডের হিন্দি ফিল্মের ভিলেনের মতো বানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। এবার সেটার অবসান ঘটাতে চাই। আমরা বন্ধুত্ব চাই। আলোচনার মাধ্যমেই কাশ্মীর সমস্যার সমাধান করতে চাই বলে মন্তব্য করেছেন পিটিআই প্রধান ইমরান খান।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় দেওয়া এক ভাষণে তিনি নির্বাচনে জয়ী দাবি করে এসব কথা বলেন।

ইমরান বলেন, ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখাই নতুন সরকারের লক্ষ্য হবে। পাকিস্তান নিয়ে তিনি বলেন, নতুন সরকার হবে সাধারণ মানুষের সরকার। শ্রমজীবী মানুষের সরকার।

তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানে এ সরকারই হবে কোনো রকম রাজনৈতিক দমনপীড়ন না চালানো প্রথম সরকার।’

বিবিসি’র দেওয়া শেষ খবর অনুযায়ী, ৪৯ শতাংশ ভোট গণনায় দেখা যাচ্ছে, পার্লামেন্টের ২৭২টি আসনের মধ্যে ইমরান খানের পিটিআই ১১৯ আসনে এগিয়ে আছে। অর্থাৎ ১৩৭-এর ম্যাজিক ফিগার থেকে খুব বেশি দূরে নেই দলটি। যেখানে নওয়াজ শরিফের দল পিএমএল-এন ৬১ আসন এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টোর ছেলে বিলাওয়ালের নেতৃত্বাধীন পিপিপি ৪০ আসন নিয়ে অনেকটাই দূরে অবস্থান করছে।

নির্বাচনের পুরো ফল পেতে এখনো ঢের সময় বাকি। কিন্তু এখন পর্যন্ত গণনা হওয়া অর্ধেক ভোটের পরিসংখ্যানে ইমরান খান যে রাজনীতির মাঠেও ‘সেঞ্চুরি’ করে ফেলেছেন তা এক রকম নিশ্চিত।

এদিকে ইমরানের জয়ের ব্যাপারটি কোনোভাবেই মানছে না প্রতিদ্বন্দ্বী দলগুলো। তারা ভোট গণনা এবং ভোট প্রক্রিয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে এবং ভোটের ফলকে গণতন্ত্রের ওপর আঘাত বলে বর্ণনা করছে।

আরও পড়ুন: কেমন প্রধানমন্ত্রী হবেন ইমরান খান?

আরএম/

 

নির্বাচনে ডিসিদের সঠিক দায়িত্ব পালনের নির্দেশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

আওয়ার ইসলাম: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল আগামী একাদশ জাতীয় নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্নের জন্য জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) সঠিকভাবে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দিয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার (২৬ জুলাই) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ কক্ষে ডিসি সম্মেলনের তৃতীয় ও শেষ দিনের শেষ কার্য-অধিবেশনে তিনি এ নির্দেশ দেন। শেষ সাংবাদিকদের একথা জানান তিনি।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ ও সুরক্ষা সেবা বিভাগের সঙ্গে ডিসিদের এ কার্য-অধিবেশন হয়। মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম এতে সভাপতিত্ব করেন।

ডিসিদের উদেশ্যে করে তিনি বলেন,স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তিনি বলেন, আগামীতে নির্বাচন আসছে, নির্বাচন কমিশন তফসিল ঘোষণার পর শৃঙ্খলা রক্ষায় নিরাপত্তা বাহিনী যথেষ্ট প্রস্তুত রয়েছে। তাদের সক্ষমতাও যথেষ্ট বৃদ্ধি হয়েছে। ইলেকশন কন্ডাক্টে তাদের প্রয়োজনীয় জনবল, লজিস্টিক সাপোর্ট দেয়া হচ্ছে। যেগুলো বাকি আছে তা দেয়া হবে।

তিনি বলেন, তাদেরকে (ডিসি) আহ্বান করেছি একটা সুষ্ঠু নির্বাচন জাতিকে উপহার দিতে দায়িত্বটা যেন তারা সঠিক সময়ে সঠিকভাবে পালন করেন। ডিসি-এসপিদের সমন্বয় নিয়ে কোনো কথা এসেছে কিনা জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, না, না, এই ধরনের কোনো কথা আসেনি। আমি যে কথাগুলো বললাম, এর বাইরে তারা কোনো কথা জিজ্ঞেস করেনি।

আরও পড়ুন: সড়ক সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীদের রাস্তা ঠিক করার নির্দেশ কাদেরের

আরএম/

পাকিস্তানে নির্বাচনি প্রার্থীর ওপর আত্মঘাতি হামলা: নিহত ২

আওয়ার ইসলাম: পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখা প্রদেশে ডিআইখান এলাকায় তেহরিকে ইনসাফের প্রার্থী ও সাবেক প্রাদেশিক মন্ত্রী ইকরামুল্লাহ খান গান্দাপুরের ওপর আত্মঘাতি হামলায় দু’জন নিহত হয়েছে। খবর জি নিউজ-এর।

হামলায় ওই প্রার্থীর ড্রাইভার ও দেহরক্ষী নিহত হয়েছেন। প্রার্থীসহ আহত হয়েছে আরও এক। হামলায় আহত ওই প্রার্থী ইমরান খানের দল তেহরিকে ইনসাফের টিকিটে তাহসিল কলাচি থেকে নির্বাচনে দাঁড়িয়েছিলেন।

জিও নিউজের খবরে বলা হয়, কালাচি বিস্ফোরণের পর নিরাপত্তা বাহিনী এলাকাজুড়ে কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা নিয়েছে। ইকরামুল্লাহ খান বাসা থেকে বের হয়ে গাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন। কিছু দূর এগুলেই গাড়ির কাছে বিস্ফোরণ হয়। বিস্ফোরণের জায়গায় একজন ব্যক্তির মাথা পড়ে থাকতে দেখা যায়।

এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে তেহরিকে ইনসাফের চেয়ারম্যান এ হামলাকে কাপুরুষোচিত হামলা বলে আখ্যায়িত করেছে। টুইটারে এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, আল্লাহ তায়ালা ইকরামুল্লাহ খান ও আহতদের দ্রুত আরোগ্য দান করুন।

উল্লেখ্য, আগামী ২৫ জুলাই দেশটিতে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ওই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন হামলার ঘটনা ঘটছে। গত কিছুদিন আগেও নির্বাচনী প্রচারণায় হামলার ঘটনা ঘটেছিল। সূত্র:  জিও নিউজ উর্দু।

আরও পড়ুন- সৌদিতে মসজিদে নববীর সাবেক খতিব গ্রেফতার!
রাসুল সা.-এর ২৪ ঘন্টার সংক্ষিপ্ত রুটিন
২০১৮ সালের বিশ্বসেরা ১০ মুসলিম ব্যক্তিত্ব
বিয়ের পর হানিমুন: ইসলাম কী বলে?
সমাজে প্রচলিত ৩টি ভুল মাসআলা
লোকমুখে প্রচলিত ৩টি জাল হাদিস

আরএম-