150031

ধামরাইয়ে ভণ্ড পীর কর্তৃক মসজিদ ভাঙার ঘটনায় বিক্ষোভ, আটক ২

আওয়ার ইসলাম: রাজধানী ঢাকার অদূরে ধামরাই উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের বাইচাইল এলাকায় ৪০ বছরের পুরনো একটি মসজিদ ভাঙচুরের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছে স্থানীয়রা।

শনিবার (২০ এপ্রিল) মসজিদ ভাঙার ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে এলাকাবাসী বিক্ষোভ করে।

স্থানীয়রা জানান, কিছু কুচক্রী মহল দলীয় প্রভাব বজায় রাখতে রাতের আঁধারে ভেঙে দেয় ৪০ বছরের পুরনো বাইচাইল গ্রামের টিনের চৌচালা জামে মসজিদটি। গ্রামের ভণ্ড পীর মোতাহার হোসেন, খোরশেদসহ বেশকিছু লোক মিলে মসজিদে ভাঙচুর চালায়। তারা মসজিদটি ভেঙে এর পার্শ্ববর্তী এলাকা দখল নিয়ে ভোগ করতে চায়।

গ্রামবাসী আরও জানান, বাইচাইল মসজিদের আশপাশে পুকুর, মাঠসহ প্রায় ৫৯০ শতাংশ জমি রয়েছে। মসজিদ ভাঙচুরে জড়িতরা মসজিদটি ভেঙে এসব দখল নেয়ার চেষ্টায় আছে বেশ কয়েক বছর ধরে। কিছু দিন আগেও মসজিদ সংলগ্ন কিছু গাছ কেটে তারা বিক্রি করে দিয়েছে। গ্রামবাসী প্রতিবাদ জানালে ক্ষুব্ধ হয়ে মসজিদে ভাঙচুর চালায় তারা। এ ঘটনায় ধামরাই থানায় একটি মামলা হয়েছে।

এ ঘটনায় ধামরাই থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি দীপঙ্ক চন্দ্র রায় জানান, জড়িত হান্নান এবং দেওয়ান নামে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিরা পলাতক রয়েছে। খুব দ্রুতই বাকিদেরও আইনের আওতায় আনা হবে।

এদিকে,মসজিদ গুঁড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় জড়িতদের কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে হুশিয়ার করে দিয়েছেন ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) শাহ মিজান শাফিউর রহমান।

বাইচাইল গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রাতের আঁধারে ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া চল্লিশ বছরের পুরনো বাইচাইল গ্রামের টিনের চৌচালা জামে মসজিদটি পরিদর্শনকালে এমন কথা বলেন। এসময় তিনি মসজিদ ভাঙার ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, মসজিদ ভাঙার অভিযোগে অভিযুক্ত দুই জনকে ইতোমধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। জড়িত অন্যদেরকেও দ্রুত আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে যাতে পুনরায় কেউ কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটান বা কেউ আইন হাতে তুলে না নেন সে বিষয়ে সবাইকে সতর্ক এবং শান্ত থাকতে হবে।

আরএম/

 

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *