২০১৯-০১-১৬

শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

‘প্রতারণা ও ধোকাবাজির নির্বাচনের জন্য জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত’

OURISLAM24.COM
news-image

আওয়ার ইসলাম: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, ৩০ ডিসেম্বরের ধোকাবাজি, প্রহসন ও ভোট জালিয়াতির নির্বাচনের নজির নেই। সরকার ও নির্বাচন কমিশনকে প্রতারণা ও ধোকাবাজির নির্বাচনের জন্য জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত।

আজ বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে জানা যায়, ইসলামী আন্দোলন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে ২৯৮জন প্রার্থী নির্বাচনের ফলাফল বাতিল করে পূনঃনির্বাচনের দাবিতে প্রেসিডেন্টের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে। স্মারকলিপি জমা দেয়ার পর তিনি এসব কথা বলেন।

ইসলামী আন্দোলন পাঠানো বিবৃতিতে বলা   প্রেসক্লাবের সামনে থেকে আজ এ কর্মসূচি পালনের কথা থাকলেও পুলিশের বাধায় বিএমএ ভবনের সামনে প্রার্থীরা জমায়েত হয়। সেখান থেকে দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানীর নেতৃত্বে ৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল বঙ্গভবনে গিয়ে প্রেসিডেন্টের বরাবরে স্মারকলিপি পেশ করেন।

প্রেসিডেন্টের পক্ষে প্রেসসচিব জয়নুল আবেদীন স্মারকলিপি গ্রহণ করেন। প্রতিনিধিদলে ছিলেন মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, নায়েবে আমীর মাওলানা আব্দুল হক আজাদ, রাজনৈতিক উপদেষ্টা অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, সহকারী মহাসচিব মাওলানা আবদুল কাদের ও শিল্প বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুর রহমান।

স্মারকলিপি কর্মসূচিতে প্রশাসনের বাধার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন দলের আমীর পীর সাহেব চরমোনাই। তিনি বলেন, ৩০ ডিসেম্বরের ধোকাবাজি, প্রহসন ও ভোট জালিয়াতির নির্বাচনের নজির নেই। সরকার ও নির্বাচন কমিশনকে প্রতারণা ও ধোকাবাজির নির্বাচনের জন্য জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত।

পীর সাহেব চরমোনাই জালিয়াতির নির্বাচনের ফলাফল বাতিল করে নির্দলীয় সরকারের অধীনে পুনরায় নির্বাচনের দাবি করেন। তিনি বলেন, এ নির্বাচন জনগণের সাথে চরম ধোকা। দেশের মানুষ পরিবর্তনের জন্য ভোট দিতে না পারায় আফসোস করছেন।

স্বাধীনতার ৪৭ বছর পরও মানুষ ভোট ও মানবাধিকার থেকে বঞ্চিত। এরূপ ভোটের কারণেই পারুল বেগমরা নির্যাতিত ও ধর্ষিত। এখন আবার উপজেলা নির্বাচনের নামে আরেক প্রহসনের চক্রান্ত চলছে। পীর সাহেব বলেন, জনগণের অধিকার কেড়ে নিয়ে সরকারের আখের রক্ষা হবেনা। বিশ্বের কোন স্বৈরশাসক রেহাই পায়নি। এই সরক্রাও রেহাই পাবে না।

জমায়েতে আরো বক্তব্য রাখেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী, নায়েবে আমীর মাওলানা আব্দল হক আজাদ, মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, মাওলানা ইমতিয়াজ আলম প্রমুখ।

প্রিন্সিপাল মোসাদ্দেক বিল্লাহ মাদানী বলেন, মানুষের মৌলিক ও ভোটাধিকার আজ ভুলুন্ঠিত। সরকার মানুষের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। তিনি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা-মামলা ও হয়রানী বন্ধের দাবি জানান।

কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরা অধিবেশন কাল ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরা অধিবেশন আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় সেগুনবাগিচাস্থ শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে।

এতে সভাপতিত্ব করবেন দলের আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই। এছাড়া চীন ও ফিলিস্তিনে মুসলিম নির্যাতনের প্রতিবাদে রাজধানীর বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটে কাল শুক্রবার বাদ জুমআ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।

-এটি