২০১৮-১১-২০

মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮

এককভাবেই নির্বাচনে ঐক্যজোট; নির্বাচন করবেন না মুফতি ফয়জুল্লাহ

OURISLAM24.COM
news-image

রোকন রাইয়ান ।।

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মিনার প্রতীকে এককভাবেই লড়বে ইসলামী ঐক্যজোট। এ লক্ষ্যে দলটি ঢাকাসহ সারাদেশে অর্ধশতাধিক আসনে প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে।

জোটবন্ধ হয়ে আগামী নির্বাচনে অংশ নেয়ার কথা থাকলেও সে চিন্তা দলে নেই বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় একাধিক নেতা।

জানা যায়, মঙ্গলবার সকাল ১০টায় লালবাগস্থ কার্যালয়ে ইসলামী ঐক্যজোটের পার্লামেন্টারী বোর্ডের সভায় মনোনয়ন প্রতাশীদের তালিকা যাচাই-বাছাই শেষে ৫৬ জনের একটি প্রাথমিক তালিকা চূড়ান্ত করা হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন বোর্ডের চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুল লতিফ নেজামী।

উপস্থিত ছিলেন পার্লামেন্টারী বোর্ডের সদস্য মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী, মাওলানা আবদুর রশিদ মজুমদার, মাওলানা যোবায়ের আহমদ, মাওলানা জসিমউদ্দিন, অধ্যাপক মাওলানা এহতেশাম সারওয়ার, মাওলানা মুফতী তৈয়্যব হোসাইন, মাওলানা আবুল কাশেম, মাওলানা শেখ লোকমান হোসাইন, মাওলানা আলতাফ হোসাইন, মাওলানা আনসারুল হক ইমরান প্রমুখ।

মা অসুস্থ থাকায় এ বৈঠকে দলের মহাসচিব মুফতি ফয়জুল্লাহ অংশ নেননি বলে জানা যায়।

নির্বাচন উপলক্ষে বেশ কিছুদিন ধরেই সরকার দলীয় জোটে যাওয়ার আভাস এবং বিভিন্ন পত্রিকায় এ নিয়ে নিউজ হলেও সেগুলোকে নাকচ করেছেন কেন্দ্রীয় নেতৃবন্দ। এ বিষয়ে আওয়ার ইসলামকে তারা বলেন, আগামী নির্বাচন উপলক্ষে আমরা একটি ইসলামি প্লাটফরম তৈরির চেষ্টা করেছিলাম, কোনো জোটে যাওয়ার ব্যাপারে আমাদের সিদ্ধান্ত ছিল না।

নেতৃবৃন্দ বলেন, ইসলামী ঐক্যজোট মিনার প্রতীকেই নির্বাচন করবে এবং এককভাবেই নির্বাচন করবে।

তবে প্রার্থী তালিকায় আলোচনায় থাকা কেন্দ্রীয় অনেক নেতাই নির্বাচনে আসবেন না বলে জানিয়েছে একটি বিশ্বস্ত সূত্র। সে তালিকায় রয়েছেন দলের মহাসচিব মুফতি ফয়জুল্লাহ।

চট্টগ্রাম ৭ আসন থেকে তার পক্ষে মনোনয়ন ফরম তোলা ও প্রার্থী হিসেবে দল থেকে তাকে চূড়ান্ত করা হলেও তিনি নির্বাচন করবেন না বলেই জানা গেছে।

কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে মনোনয়ন চূড়ান্ত করা প্রার্থীরা হলেন, মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামী নরসিংদী-৩, মুফতী ফয়জুল্লাহ চট্টগ্রাম-৭, মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২, মাওলানা আবদুর রশিদ মজুমদার ঢাকা-৬, মাওলানা যোবায়ের আহমদ গাইবান্ধা-২, অধ্যাপক মাওলানা এহতেশাম সারওয়ার নেত্রকোণা-৩, মুফতী তৈয়্যব হোসাইন ময়মনসিংহ-২, মাওলানা আলতাফ হোসাইন কুমিল্লা-১, মাওলানা মঈনুদ্দিন রুহী চট্টগ্রাম-৫, মাওলানা ফজলুর রহমান গাজীপুর-১, মাওলানা আনসারুল হক ইমরান ঢাকা-২।

মনোনয়ন চূড়ান্ত হওয়া অন্যদের মধ্যে রয়েছেন, মাওলানা শেখ লোকমান হোসাইন গাজীপুর-৫,  মাওলানা একেএম আশরাফুল হক ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১, মাওলানা জিয়াউল হক মজুমদার ঢাকা-৮, মাওলানা আবুল খায়ের বিক্রমপুরী ঢাকা-৩, মুফতী আব্দুল কাইয়ুম ঢাকা-৫, মু. আনোয়ার পারভেজ সানি ঢাকা-৭, মুফতী বখতিয়ার হোসাইন ঢাকা-১৮, মাওলানা যাকারিয়া মাহমুদ ঢাকা-২০, মাওলানা কাজী মঈনুদ্দীন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪, মাওলানা মেহেদী হাসান ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫, মাওলানা ক্বারী নাসিরউদ্দিন ঝালকাঠি-১, মাওলানা ইব্রাহীম খলীল কুড়িগ্রাম-১, মাওলানা শহীদুল ইসলাম ইনসাফী যশোর-২।

মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস নড়াইল-১, মাওলানা মাহবুবুর রহমান নড়াইল-২, মাওলানা রফিকুল ইসলাম বরগুনা-১, ক্বারী বশির আহমদ বরগুনা-২, মোঃ সাঈদুর রহমান ময়মনসিংহ-৮, মুফতী কামরুল ইসলাম ময়মনসিংহ-৯, মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আমিনী কিশোরগঞ্জ-৪, এ.এস.এম শামসুল আলম বাবুনগরী চট্টগ্রাম-২, মাওলানা মুহাম্মদ ইসহাক নরসিংদী-১, মুফতী সাইফুল্লাহ হাবিবী বরিশাল-৪, ক্বারী রহমতুল্লাহ নেত্রকোণা-১।

মাওলানা ফয়জুল হক জালালাবাদী সিলেট-১, আ.ক.ম এনামুল হক মামুন অথবা হাফেজ মাওলানা নওফল আহমদ সিলেট-২, ডা. হাবীবুর রহমান সিলেট-৬, মাওলানা মাসউদুর রহমান নেজামী মৌলভীবাজার-১, মাওলানা আসলাম রাহমানী মৌলভীবাজার-২, মাওলানা ইমরান আলম সুনামগঞ্জ-৩, মাওলানা আবু ইউসুফ হবিগঞ্জ-২।

মাওলানা আতাউর রহমান হবিগঞ্জ-৩, মাওলানা ইয়াসিন আরাফাত কুমিল্লা-৩, মাওলানা হাবিবুর রহমান নারায়নগঞ্জ-১, মাওলানা রহমতুল্লাহ বুখারী নারায়নগঞ্জ-৩, মুফতী আরিফুল ইসলাম নারায়নগঞ্জ-৫, মাওলানা নজরুল ইসলাম বগুড়া-৫, ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম বগুড়া-৬, মুফতী আরিফ বিল্লাহ ঝিনাইদহ-২।

মাওলানা আবদুর রহমান (শাহ আলম) পটুয়াখালী-১, মাওলানা আবুল হাসান তালুকদার পটুয়াখালী-৩, হাফেজ মুহাম্মদ হেমায়েত হোসেন পিরোজপুর-২, মাওলানা ওয়াহিদুল হক চাঁদপুর-১, মাওলানা আনোয়ার হোসাইন ফরিদপুর-১।

আপাতত ৫৬ জনের তালিকা চূড়ান্ত হলেও এ তালিকা বাড়তে পারে বলে মনে করছেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। তবে তালিকা চূড়ান্ত হওয়া কেউ কেউ বাদও পড়তে পারেন বলে জানা গেছে।

নেতারা জানান, এলাকায় জনপ্রিয়তা রয়েছে এবং ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা তৈরিতে সক্ষম এমন প্রার্থীই খুঁজছে ইসলামী ঐক্যজোট। যাদের সম্ভবনা একেবারেই কম তাদের প্রার্থী না দেয়ার পক্ষেই নেতারা।

দলটির কেন্দ্রীয় নেতা ও ঢাকা ২ আসনের মনোনীত প্রার্থী মাওলানা আনসারুল হক ইমরান আওয়ার ইসলামকে বলেন, ইসলামী ঐক্যজোটের ঐতিহ্যবাহী প্রতীক মিনার। এ প্রতীকেই আমরা এককভাবে নির্বাচন করবো ইনশাল্লাহ।

তিনি বলেন, দলীয় বৈঠকে আজ প্রায় ৬০ জন প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে। এ তালিকার কমবেশ হতে পারে।

তিনি ইসলামি জনতা ও গণমানুষকে মিনার প্রতীকে ভোট দেয়ার আহ্বান জানান।

ইসলামী আন্দোলনের শীর্ষ নেতারা কে কোথায় লড়ছেন?