২০১৮-১০-১৮

বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮

মনোনয়ন পেলে খেলাফত কায়েমে কাজ করবো: আতাউল্লহ আমীন

OURISLAM24.COM
news-image

মাহমুদুল হাসান, কিশোরগঞ্জ

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের ভৈরব শাখার আয়োজনে মতিবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

১৮ অক্টোবর বৃহস্পতিবার ভৈরবের কমলপুরে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মতবিনিময় সভায় বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব, কিশোরগঞ্জ-৬ (ভৈরব কুলিয়ারচর) আসনে সম্মিলিত জোট থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন বলেন, আমাকে জোট থেকে মনোনয়ন দেয়া হলে এদেশে খেলাফত প্রতিষ্ঠান জন্য কাজ করে যাব ইনশা আল্লাহ।

তিনি বলেন, আমাদের ইতিহাস অনেক সমৃদ্ধ। আপনারা জানেন পাক ভারত বাংলাদেশ ইতিহাসে জাতীয় রাজনীতিতে যে মহান ব্যক্তি সবচেয়ে বেশি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন তিনি হলেন মাওলা আতহার আলী রাহ.। তিলি সিলেটে জন্মগ্রহণ করলেও কর্ম জীবন কাটিয়েছেন আমাদের কিশোরগঞ্জের মাটিতে। যার নেতৃত্বে পাকিস্তানের পার্লামেন্টে
৩৬ জন সংসদ সদস্য ছিল।

তিনি বলেন, এদেশের উলামায়ে কেরামকে জাতীয় সংসদে নেয়ার যে অবদল ছিল তাঁর এচেয়ে বড় আবদান আর কারোর নেই। বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার পর হাফেজ্জী হুজুর রাহ সর্বপ্রথম রাষ্ট্রীয়ভাবে ইসলাম প্রতিষ্ঠা করার আন্দোলনের ডাক দিয়েছিলেন, সে আন্দোলকে পূর্ণাঙ্গ করার জন্য তারই হাতে গড়া শিষ্য আমাদের প্রান প্রিয় রাহবার আল্লামা শাইখুল হাদীস রাহ. আজীবন মেহনত করেছেন।

তিনি এমন একজন নেতা যিনি নিজস্ব গতিতে বাংলাদেশের সংসদে একজন আলেমকে প্রেরণ করতে পেরেছিলেন। তিলি হলেন, আমাদের নেতা খেলাফত মজলিসের অবিভাবক পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মাওলানা উবাইদুল হক উজিরপুরী রহ.।

তিনি আরও বলনে. আমি নির্বাচন করতে অনেকটা ভয়ে ছিলাম কিন্ত আমাকে আল্লামা যোবায়ের আহমদ আনসারী সাহেব অভয়ের বাণী শোনালেন। আমি প্রস্তুত হয়ে গেলাম নির্বাচনের জন্য।

আপনারা জানেন ইতোমধ্যে নির্বাচনের প্রস্ততি শুরু হয়েছে, আমি আশা করি আমাকে সম্মিলিত জোট থেকে মনোনয়ন দেয়া হলে আপনারা সার্বিক সহযোগিতায় থাকবেন।

মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমীর আল্লামা যুবায়ের আহমদ আনসারী।

তিনি বলেন, এখন বক্তৃতা নয় মাঠে কাজ করার সময়। আমেরিকা ফ্রান্সসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে খেলাফত মজলিসের কার্যক্রক খুব গোছালোভাবে চলছে৷ আমাদের একমাত্র উদ্দেশ্য হলো আল্লাহর জমীনে আল্লাহর দ্বীন প্রতিষ্ঠা করা৷

তিনি আরও বলেন, আমি খেলাফত মজলিসে ১৯৯৫ সালে যোগদান করে ৯৬ সালেই নাসীরনগর থেকে এমপি নির্বাচন করেছি। নির্বাচন করার মতো অর্থ ছিল না তবুও করেছিলাম আল্লাহর জমিনে আল্লাহর দ্বীন প্রতিষ্ঠা করার লক্ষ্যেই।

যদিও তখন আমি পাশ করতে পারিনি কিন্তু দমে যাইনি৷ আলহামদুলিল্লাহ আজও খেলাফত মজলিসের প্রভাব আমার নাসিরনগরে আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে ইনশাআল্লাহ।

এ ছাড়াও উক্ত মতবিনিময় আরও বক্তব্য রাখেন মাওলানা জাকারিয়া আমিনী, মাওলানা মুখতার হুসাইন রায়পুরী, মাওলানা ইসমাইল সরদার, মাওলনা এনায়েতুল্লাহ ভৈরবী, মুফতি নাসিরুদ্দিন,
মাওলানা আব্দুর রহমান, মাওলানা মনির বিন রুহুল, মাওলানা আব্দুস সালাম প্রমুখ।

মতবিনিময় সভায় ভৈরব, কুলিয়ারচর থেকে প্রায় শতাধিক নেতাকর্মী যোগদান করেন।

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস যুক্তরাষ্ট্র শাখা গঠন

-আরআর