২০১৮-১০-১৫

বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮

জেএসসি ও সমমান পরীক্ষা ১ নভেম্বর শুরু

OURISLAM24.COM
news-image

আওয়ার ইসলাম: জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা আগামী ১ নভেম্বর থেকে একযোগে সারাদেশে শুরু হবে। এবারের পরীক্ষায় প্রায় ২৬ লাখ শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। পরীক্ষা চলাকালিন সময়ে জটলা নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

সোমবার (১৫ অক্টোবর) সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও সমমান পরীক্ষা-২০১৮ উপলক্ষে জাতীয় মনিটরিং সেল এবং আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

কমিটির বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। বৈঠকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইনসহ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিভিন্ন শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও প্রতিনিধি, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতিনিধি ও গোয়েন্দাসংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিতি ছিলেন।

অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ‘আমরা চাচ্ছি সুষ্ঠভাবে পরীক্ষা নেব। প্রশ্নপত্র ফাঁস ও গুজব ঠেকাতে যা যা প্রয়োজন, সেটা আমরা করবো। আশা করি, প্রশ্নপত্র ফাঁসের সুযোগ থাকবে না। অভিভাবক ও পরীক্ষার যারা দায়িত্ব পালন করছেন, তারা সহযোগিতা করবেন।’

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, ‘বিগত পরীক্ষার মতো এবারও পরীক্ষা শুরুর আগে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষাকেন্দ্রে প্রবেশ করে নিজ নিজ আসনে বসতে হবে। পরীক্ষা শুরুর ২৫ মিনিট আগে প্রশ্নপত্রের প্যাকেট খুলতে হবে। লটারির করে কেন্দ্র সচিবকে ২৫ মিনিট আগে ম্যাসেজের মাধ্যমে জানানো হবে কোন সেটে পরীক্ষা নেওয়া হবে।

গত বছর এসব নির্দেশনাসহ আর যেসব নির্দেশনা ছিল, সেই নির্দেশনা থাকবে। বিগত সময়ের নির্দেশনা অনুযায়ী পরীক্ষা শুরুর পাঁচ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদের প্রশ্নপত্র দেওয়া হবে।’

শিক্ষামন্ত্রী জানান, এবার ২৬ লাখেরও বেশি শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেবে। জেএসপি পরীক্ষা ১ নভেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ১৫ নভেম্বর এবং জেডিসি পরীক্ষা ১ নভেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ১৪ নভেম্বর।

কমিটির বৈঠকে জানানো হয়, পরীক্ষা চলাকালীন পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট ছাড়া কেউ পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবেন না। কেন্দ্রসচিব একটি মোবাইল ফোন ব্যবহার করবেন (ক্যামেরাবিহীন)। অন্য কেউ কোনও প্রকার মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্নফাঁস ও গুজবকারীদের বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারি থাকবে। প্রশ্নপত্র ফাঁস কিংবা পরীক্ষার্থীদের কাছে উত্তরপত্র সরবরাহে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও জেলা প্রশাসন কঠোরভাবে আইনগত ব্যবস্থা নেবে।

মিডিয়া কাভারেজ না পাওয়ার খেদ ও কিছু বাস্তবতা

আরএম/