২০১৮-০৯-২৭

বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮

আলেমদের মিডিয়ায় পদচারণা অপরিহার্য!

OURISLAM24.COM
news-image

তাওহিদ আদনান
ভারত থেকে

হিন্দুস্তানে উর্দু-হিন্দি সব পত্রিকার মাঠই গরম৷ দেদারছে চলে সকল পত্রিকাই৷  উর্দু দৈনিকগুলো মুসলমানদের দখলে৷ যদিও কিছু কিছু শিয়া বা বেদআতী৷ তবুও মুসলমানদের আধিপত্য আছে উর্দু পত্রিকাগুলোতে৷ কম-বেশি ৫০ থেকে ৬০টা জাতীয় উর্দু দৈনিক রয়েছে হিন্দুস্তানে৷ আজকে প্রায় ২৯টি পত্রিকায় নজর বুলিয়েছি৷ হিন্দুস্তানের চলমান পরিস্থির খবর-আখবার জানার জন্য৷

বাংলাদেশের গণমাধ্যম ও সাংবাদিকতায় আলোকিতজনেরা

অধিকাংশে পত্রিকাতেই একটি খবর একই ধরণের শিরোনামে এসেছে৷ খবরটা হলো কলকাতার৷ কলকাতায় গতকাল বিজেপি হরতাল ডেকেছিল৷ হরতালের তেমন কোনো প্রভাব পড়েনি সেখানে৷ খবরটি উর্দু দৈনিকগুলোতে এসেছে প্রায় একই ধরণের শিরোনামে৷ সবগুলো শিরোনামই এরকম ছিলো যে, কলকাতায় বিজেপির হরতালের কোনো প্রভাব দেখা যায়নি গতকাল৷

পক্ষান্তরে দুইটা হিন্দি পত্রিকাও পড়েছি আজ৷ হিন্দি পত্রিকায় কলকাতার হরতালের বিষয়ে শিরনামটা ছিলো এমন, কলকাতায় বিজেপির শক্তি প্রদর্শন; বিজেপির ডাকে পালিত হলো দিনভর হরতাল কর্মসূচি৷

আপনার ব্যবসার হিসাব এখন হাতের মুঠোয়- ক্লিক

নিউজগুলো বারবার পড়েছি আর ভেবেছি হিন্দুস্তানের মিডিয়া কতটা স্বাধীন৷ যদিও বর্ণিত বিষয়টা একদম স্বাভাবিক৷ তবুও অন্যান্য আরো বহু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়েও দেখেছি হিন্দুস্তানী মিডিয়ার স্বাধীনতা৷ যেমন গতকালের ঘটনা, ইউপি মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের ব্যাপারে একটি নিউজ এসেছে অনেক দৈনিকে৷ স্বাধীনভাবে তার বিরুদ্ধে কলাম ও নিউজ ছেপেছে পত্রিকাগুলো৷

হিন্দি পত্রিকাগুলোতে হিন্দুস্তানে মুসলমানদের বিলকুলই দখল নেই৷ তাই গাইরে মুসলিমরা তাদের মতো করে সাজায় তাদের পত্রিকা৷

বিষয়গুলো নিয়ে বারবার ভাবছি৷ হিন্দুস্তানে বিষয়টি মুসলিম ও অমুসলিমের হলেও আমাদের দেশে বিষয়টি আলেম ও গাইরে আলেমের ৷ কারণ আমাদের দেশে গাইরে আলেমদের মাঝে ইসলামের কল্যাণকামীতা নেই ৯০ ভাগের মানুষেরই৷ বাকী যাদের আছে তারাও কোণঠাসা অন্যের দ্বারা৷

কওমি সনদের স্বীকৃতি: তসলিমারা কেন ভীত?

চিন্তার বিষয়, আমাদের দেশের কী করুণ দশা! মিডিয়াতে আলেমদের দখল নেই বললেই চলে৷ যাও আছে তা বাকশক্তিহীন প্রায়৷ বাকশক্তিহীন হওয়ার কারণ হলো রাষ্ট্রব্যাপস্থাপনার অস্বচ্ছতা৷ তবুও বাকশক্তিহীন হলেও মিডিয়া দখলে নেয়ার যে কতটা প্রয়োজন তা নতুন করে বলার মতো কোনো বিষয় নয়৷

মিডিয়া আমাদের দখলে না থাকায় বামরা নিজেদের মতো করে নিউজ সাজায়৷ মিথ্যার আশ্রয় নেয় না৷ কিন্তু সত্যটাকেই নেগেটিভ বানিয়ে ফেলে৷ নেগেটিভকে পজেটিভ বানিয়ে ফেলে৷ তাই মনে করি আলমদের মিডিয়ায় পদচারণা অপরিহার্য বর্তমান সময়ে৷ এখনও সময় আছে আলেমদের উদ্যোগী হওয়ার!

কওমি মাদরাসা ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার – বিস্তারিত জানুন 

আরএম/