২০১৮-০৯-১৮

বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮

তারেকসহ সব আসামির ‘সর্বোচ্চ সাজা’ চায় রাষ্ট্রপক্ষ

OURISLAM24.COM
news-image

আওয়ার ইসলাম: ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের জনসভায় গ্রেনেড হামলা মামলায় তারেক রহমানসহ সব আসামির সর্বোচ্চ সাজা চেয়েছে রাষ্ট্রপক্ষ।

এই মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ এবং যুক্তি উপস্থাপনে সব আসামির বিপক্ষে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণের দাবি করেছেন রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান আইনজীবী সৈয়দ রেজাউর রহমান।

হামলার ১৪ বছর এবং বিচার শুরুর ছয় বছরেরও বেশি সময় পর মঙ্গলবার এই মামলার শুনানি শেষে রায়ের তারিখ আসে।

ঢাকার এক নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিন ৪৯ জন আসামির বিষয়ে তার সিদ্ধান্ত জানাবেন ১০ অক্টোবর।

আদালত এই সিদ্ধান্ত জানানোর পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন সৈয়দ রেজাউর রহমান। তিনি এই হামলাকে জঘন্য, বর্বরোচিত, অপরাধ জগতের ইতিহাসে অনন্য অপরাধ হিসেবে বর্ণনা করেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বলেন, ‘আমাদের প্রত্যাশা পূর্বেও ব্যক্ত করেছি সম্মানিত আদালতের সম্মুখে। আজও বলছি আইনে যেভাবে বলা হয়েছে, সেভাবে সর্বোচ্চ সাজা যেন দেয়া হয়।’

‘আমরা ২২৫ জন সাক্ষীর মাধ্যমে সম্মানিত আদালতে সন্দেহের ঊর্ধ্বে থেকে প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছি।’

রাষ্ট্রপক্ষ যাদের ফাঁসি দাবি করেছে তাদের মধ্যে আছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিণ্টু, খালেদা জিয়ার ভাগ্নে ও ডিজিএফআইয়ের সাবেক কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম ডিউক।

এই মামলায় ৫২ জন আসামির মধ্যে জামায়াত নেতা আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদ, নেতা মুফতি মুহাম্মদ হান্নানসহ তিন জনের ফাঁসি কার্যকর হয়েছে অন্য মামলায়। ফলে ৪৯ জনের পরিণতি জানা যাবে ১০ অক্টোবর।

১৪ বছর আগে ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের জনসভায় গ্রেনেড হামলা হয় শেখ হাসিনাকে হত্যার জন্য। নেতারা মানববর্ম বানিয়ে তাকে রক্ষা করলেও প্রাণ হারায় ২৩ জন। আহত হয় শত শত, যাদের বহুজন এখনও স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারেননি।

এই মামলাটি বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে মামলাটিতে প্রকৃত হামলাকারীদের বাঁচিয়ে নির্দোষ জজ মিয়াকে ফাঁসানোর চেষ্টার প্রমাণ মেলে। পরে ২০০৭ সালে সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে তা ফাঁস হয়ে যায়।

ম্পূর্ণ ফিতে নিন অ্যাকাউন্টিং ও ইনভেস্টরি সফটওয়ার

এসে গেল যাদুকরী মাদরাসা ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার

এটি/আওয়ার ইসলাম