২০১৮-০৮-১৫

সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

একসঙ্গে ৬ সন্তান প্রসব, ৬ জনই মৃত

OURISLAM24.COM
news-image

আওয়ার ইসলাম: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলায় এক সঙ্গে ছয়টি মৃত সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এক প্রবাসীর স্ত্রী। আজ বুধবার বিকেলে আশুগঞ্জের বেসরকারি ক্লিনিক নূর মেডিকেল সেন্টারে সন্তানগুলোর জন্ম হয়।

ওই নারীর নাম মাহিনূর আক্তার (২৮)। তাঁর বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার দেউবাড়িয়া গ্রামে। মাহিনুরের স্বামীর নাম আবুল কালাম। তিনি সৌদি আরবে থাকেন।

স্বজনরা জানায়, প্রায় চার বছর আগে মাহিনুরের সঙ্গে সৌদিপ্রবাসী আবুল কালামের বিয়ে হয়। বিয়ের পর দীর্ঘদিন ধরে এ দম্পতির কোনো সন্তান হয়নি।এদিকে, কালাম বিদেশ থাকাকালীন উভয় পরিবারের লোকজন সন্তানের জন্য মাহিনুরকে বিভিন্ন কবিরাজি ওষুধ খাওয়ান। পরে কালাম দেশে আসলে তার স্ত্রী মাহিনুর সন্তান ধারণ করেন।

জানা যায়, মাহিনুরের সন্তানধারণের সময় প্রায় ৫ মাস চলে। তার স্বামী এখন বিদেশে অবস্থান করছেন।

গত মঙ্গলবার বিকালে খাবারের পর মাহিনুরের শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়। পরে তাকে বুধবার সকালে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে আসা হয়। চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে মাহিনুরের গর্ভে ৪টি সন্তান থাকতে পারে বলে জানান।

এদিকে চিকিৎসক দেখানোর পর বিকালে বাড়ি ফেরার পথে নৌকায় উঠতে গেলে তার আবার শারীরিক সমস্যা দেখা দেয় এবং নৌকাতেই একটি সন্তান প্রসব হয়। পরে তাকে দ্রুত নুর মেডিকেল সেন্টারে আবার আনা হলে চিকিৎসকের সহায়তায় একে একে আরও ৫টি সন্তান প্রসব হয়।

এ ব্যাপারে ক্লিনিকের চিকিৎসক শাহান আরা জানান, কোনো প্রকার অস্ত্রোপচার ছাড়াই ছয়টি অপরিপক্ক বাচ্চা ভূমিষ্ট হয়েছে। এর মধ্যে চারটি ছেলে ও দুইটি মেয়ে। সবগুলোর বাচ্চার কেবল হাত-পাসহ শারীরিক গঠন হয়েছে।

চিকিৎসক জানান, গর্ভধারণে সহায়ক যেকোনো ওষুধ গ্রহণসহ নানা কারণে মাতৃগর্ভে একাধিক ভ্রণের জন্ম হতে পারে। মাত্র চার থেকে পাঁচ মাস বয়সী এ বাচ্চাগুলোর শারীরিক গঠন পুর্ণাঙ্গতা পায়নি। ফলে তারা মৃত অবস্থায় ভূমিষ্ট হয়েছে। বর্তমানে মায়ের শারীরিক অবস্থা মোটামুটি ভালো। তবে মায়ের স্বাস্থ্যের প্রতি বিশেষ যত্ন নেওয়া প্রয়োজন।

যাদের হজের সামর্থ নেই, তাদের জন্য বিশেষ

আরএম/