২০১৮-০৮-০৫

বুধবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

৬ কোম্পানির আওতায় ৪ হাজার বাস নামানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

OURISLAM24.COM
news-image

আওয়ার ইসলাম: রাজধানীর পরিবহন ব্যবস্থা ৬টি কোম্পানির আওতায় আনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন।

তিনি বলেন, রাজধানীর পরিবহন ব্যবস্থায় ৬টি কোম্পানির আওতায় চার হাজার বাস নামানোর জন্য ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রয়াত মেয়র আনিসুল হক যে পরিকল্পনা নিয়েছিলেন তা বাস্তবায়নের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন।

রবিবার নগর ভবনের ব্যাংক ফ্লোরে ‘নিরাপদ সড়কে আমাদের করণীয়’ শীর্ষক আগামীকাল অনুষ্ঠেয় মুক্ত আলোচনা সম্পর্কে এক সংবাদ সম্মেলনে মেয়র এসব কথা বলেন।

মেয়র বলেন, বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছেন। আগামীকাল স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠেয় এক বৈঠকে বিষয়টি চূড়ান্ত হবে।

শিক্ষার্থীদের আন্দোলন সম্পর্কে তিনি বলেন, নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন যৌক্তিক ও ন্যায়সঙ্গত। তবে এই অহিংস আন্দোলনকে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে সহিংস করে দেশকে অস্থিতিশীল করার অপতৎপরতা চলছে। এই অশুভ শক্তির চক্রান্ত কোনোক্রমেই সফল হবে না। তাই নির্বাচিত প্রতিনিধিদের নিজ নিজ এলাকার অভিভাবক ও মুরব্বিদের নিয়ে ষড়যন্ত্রমূলক অপতৎপরতা মোকাবেলা করতে হবে।

মেয়র বলেন, রমিজ উদ্দিন কলেজের দু’জন নিষ্পাপ শিক্ষার্থীকে বাসচাপায় নিহত হওয়ার ঘটনায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে পুঞ্জিভূত ক্ষোভের বিস্ফোরণ ঘটে, তারা রাজপথে নেমে আসে। শিক্ষার্থীদের অহিংস আন্দোলন ও দাবি সারাদেশের মানুষ সমর্থন করেছে। তাদের এই যৌক্তিক দাবি সমর্থন জানিয়ে এরইমধ্যে তা বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি বলেন, শুরুতে শিক্ষার্থীদের এই অহিংস আন্দোলন ও দাবি অত্যন্ত সুশৃঙ্খল ছিল। তাদের প্রতীকী লাইসেন্স দেখা, গাড়ির ফিটনেস সার্টিফিকেট চেক করা, বিভিন্ন রাস্তায় পরিবহনের শৃঙ্খলা আনতে তাদের উদ্যোগ অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ ছিল। যেটা সর্বস্তরের জনগণসহ আওয়ামী লীগ সমর্থন দিয়েছে। আমরাও এই দাবি যৌক্তিক বলে মনে করি এবং এই দাবি বাস্তবায়নে ডিএসসিসি প্রয়োজনীয় সব করবে।

সাঈদ খোকন বলেন, অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় হচ্ছে শিক্ষার্থীদের এই অহিংস ও নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলকে ভিন্নখাতে নেয়ার জন্য একটি গোষ্ঠী ষড়যন্ত্রমূলক কর্মকা- করেছে, যা এরই মধ্যে চিহ্নিত। এটা অত্যন্ত উদ্বেগজনক।

অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনার সন্তান, আমাদের সন্তান, আপনার সন্তান রাষ্ট্রের ভবিষ্যৎ, আমরা আমাদের সন্তানদের আইন বহির্ভূত কার্যকলাপে উদ্ভুদ্ধ করতে পারি না। আপনার সন্তানের নিরাপত্তার দায়িত্ব রাষ্ট্রের। সেই সঙ্গে আপনার উপরও বর্তায়। তাই অনুরোধ করছি স্কুলে পাঠদান শেষে আপনার সন্তানকে ঘরে ফিরিয়ে নিন।

অশুভ শক্তির চক্রান্ত সফল হবে না উল্লেখ করে মেয়র বলেন, এদেশের জনগণ সব চক্রান্ত রুখে দেবে। এ অবস্থায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে যদি কঠোর হতে হয় তাহলে কঠোর হওয়ার বিকল্প নেই। তাই জনপ্রতিনিধিদের নিজ নিজ এলাকায় প্রস্তুত থাকতে হবে।

সোমবার সকাল ১১টায় নগর ভবনে ডিএসসিসি সর্বস্তরের জনগণকে নিয়ে মুক্ত আলোচনার আয়োজন করতে যাচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সেখান থেকে যেসব প্রস্তাব আসবে সেগুলোও বিবেচনায় নিয়ে আগামীর কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিলাল, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপক জাহিদ হোসেন, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা শেখ মো. সালাহ উদ্দিনসহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিররা উপস্থিত ছিলেন। সূত্র: বাসস

আরও পড়ুন: সড়কে দুর্ঘটনা কমাতে নতুন আইনের প্রয়োজন নেই!

আরএম/