২০১৮-০৮-০১

বুধবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

জাবালে নূরের বাসচালক ৭ দিনের রিমান্ডে

OURISLAM24.COM
news-image

আওয়ার ইসলাম: মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া অন্য আসামি মো. এনায়েত হোসেন (৩৮), মো. সোহাগ আলী, মো. রিপন হোসেন এবং মো. জোবায়ের কারাগারে রয়েছেন।

রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, গত ২৯ জুলাই জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাসচালক, আরও অজ্ঞাতনামা জাবালে নূর পরিবহনের কয়েকটি বাসের সঙ্গে বেপরোয়া গতিতে বাসটি চালিয়ে হোটেল রেডিসনের বিপরীত পাশে জিল্লুর রহমান ফ্লাইওভারের পাশে বাসে ওঠার অপেক্ষায় থাকা শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের ১৪-১৫ জন শিক্ষার্থীর ওপর তুলে দেয়।

এ ঘটনায় আহতদের মধ্যে ওই কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দিয়া খানম মিম ও বিজ্ঞান বিভাগের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম রাজীব মারা যায়।

স্থায়ী তদন্তে জানা যায়, ওই বাসের চালক মাসুম বিল্লাহ জাবালে নূর পরিবহনের আরও কয়েকটি বাস, যার রেজিস্ট্রেটশন নম্বর ‘ঢাকা মেট্টো গ-১১-৭৫৮০’, ‘ঢাকা মেট্টো ব-১১-৭৬৫৭’ সহ আরও কয়েকটি বাসের চালকরা প্রতিযোগিতামূলকভাবে বেপরোয়া ও দ্রুত গতিতে বাসগুলো চালিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের ওপর উঠিয়ে দেয়। বাসচালক গ্রেপ্তার হলেও প্রতিযোগিতায় থাকা অন্য চালক ও চালকের সহকারী এখনো পলাতক রয়েছেন।

ওই ঘটনা নিয়ে বর্তমানে পরিস্থিতি অনেক উত্তপ্ত রয়েছে। ওক্ত কলেজসহ বিভিন্ন কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা ঘাতক বাসচালক ও তাদের সহকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে আন্দোলন করে আসছে। তাদের সামাল দিতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন হচ্ছে।

এই পরিস্থিতিতে জাবালে নূর পরিবহনের ঘাতক চালক এবং তার সহযোগী অন্যান্য বাসের চালক ও চালকের সহকারীদের অবস্থান ও তাদের গ্রেপ্তারের জন্য গ্রেপ্তারকৃত চার আসামির ১০ দিনের রিমান্ড প্রয়োজন।

এর আগে গত রোববার দিবাগত রাতে ক্যান্টনমেন্ট থানায় নিহত একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দিয়া খানম মিমের বাবা জাহাঙ্গীর আলম এ মামলা দায়ের করেন।

আরও পড়ুন: সড়কে মৃত্যুর ‍মিছিল থামবে কীভাবে?

আরএম/