২০১৮-০৭-২০

রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮

বিভিন্ন ধর্মগ্রন্থ পাওয়া যায় আসামের যে মসজিদে

OURISLAM24.COM
news-image

রকিব মুহাম্মদ
আওয়ার ইসলাম

আসামের কাছাড় জেলার প্রধান জামে মসজিদের লাইব্রেরিতে ঠাঁই পেয়েছে অন্য ধর্মের গ্রন্থগুলোও। মসজিদের দোতলায় ধর্মীয় পাঠাগার গড়ে তুলেছে মসজিদ কমিটি। শুধু কোরআন বা ইসলামি বই নয়, বাইবেল, বেদ, উপনিষদসহ অন্য ধর্মের বইও থাকছে এ মসজিদ লাইব্রেরিতে।

অন্য ধর্মের প্রতি বিদ্বেষ নয়, বরং ধর্মের সারমর্ম বুঝতে সহায়তা করতেই এই লাইব্রেরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে মসজিদ কমিটি।

মসজিদ কমিটির সেক্রেটারি সাব্বির আহমেদ চৌধুরি জানান, চৌধুরী জানান, মসজিদের দ্বিতীয় তলার বারোটি আলমারিতে রয়েছে তিন শতাধিক বই। ধর্ম ও দর্শন নিয়ে মানুষকে আগ্রহী করে তুলতে এখানে বিভিন্ন গ্রন্থের সমাহার ঘটানো হয়েছে।

তিনি জানান, ছোট আকারের লাইব্রেরি হলেও এখানে রয়েছে বেদ, উপনিষদ, খ্রিস্ট ধর্মের দর্শন, রামকৃষ্ণ পরমহংস ও স্বামী বিবেকানন্দের জীবনী। রয়েছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের বইও।র মাধ্যমে মুসলিমরা অন্য ধর্ম বিষয়ে জানার সুযোগ পাবে। এটি প্রতিষ্ঠা করতে পেরে গর্ববোধ করছেন বলে জানান তিনি।

১৯৪৮ সালে তৈরি হওয়া মসজিদটিতে এই লাইব্রেরির যাত্রা শুরু ২০১২ সালে। স্থানীয় কলেজের ইংরেজির প্রভাষক সবির চৌধুরীর চেষ্টাতেই লাইব্রেরি ও রিডিং রুম প্রতিষ্ঠা করা হয়। মানুষের সহায়তা নিয়ে সংগৃহ করা হয় বই।

মসজিদে আসা সব বয়সের মানুষকে এই লাইব্রেরি আকর্ষণ করে। এদের মধ্যে অনেকেই নামাজ পড়তে আসা মুসল্লি। সাবির চৌধুরী জানান, শুক্রবার ও রমজান মাসে মানুষ বেশি আসেন। বারাক উপত্যকায় আর কোনও মসজিদে লাইব্রেরি নেই। ইন্ডিয়াতে বহু ধর্ম রয়েছে অথচ আমরা একে অপরের ধর্ম সম্পর্কে খুব বেশি জানি না। এ কারণেই আমাদের এই উদ্যোগ।

আরও পড়ুন-  কুরআন অবমাননা করে নিন্দার মুখে সৌদি কবি