২০১৮-০৭-১৭

রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

‘নুরানীর শিক্ষকরা কুরআনের অনেক বড় খেদমত আঞ্জাম দিচ্ছেন’

OURISLAM24.COM
news-image

ইশতিয়াক সিদ্দিকী, হাটহাজারী প্রতিনিধি:

দেশের সর্ববৃহৎ অরাজনৈতিক ও ধর্মীয় সংগঠন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও হাটহাজারী মাদরাসার সহযোগী মহাপরিচালক শাইখুল হাদীস আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেছেন, মহাগ্রন্থ আল-কুরআনের খেদমতে নিয়োজিত থাকা পরম সৌভাগ্যের ব্যাপার৷ নুরানী মাদরাসায় মুসলিম কচিকাচা শিশুদের বিশুদ্ধভাবে কুরআনের শিক্ষায় শিক্ষিত করলে ভবিষ্যত প্রজন্মকে আদর্শ ও উন্নত জাতিরূপে গড়ে তোলা সহজ হবে৷

আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী ১৬ জুলাই বাদ ইশা, নুরানী তালীমুল কুরআন বোর্ড চট্টগ্রাম বাংলাদেশের অধীনে হাটহাজারী পৌরসভার রেলষ্টেশন রোডস্থ স্থায়ী প্রশিক্ষণ সেন্টারে মাসব্যাপী নুরানী মুআল্লিম প্রশিক্ষণ শেষে বিদায়ী মুআল্লীমদের নসিহতকালে এ সব কথা বলেন।

এ সময় বোর্ডের সম্পাদক মাওলানা জমির উদ্দীন, প্রশিক্ষক মাওলানা সলিমুল্লাহ খান, মাওলানা আবুল হাশেম, মাষ্টার শফিকুল ইসলাম, মাষ্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, মাওলানা মাসুদুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আল্লামা বাবুনগরী আরো বলেন, যাঁরা নুরানী মাদরাসায় শিক্ষকতা করেন তাঁরা কুরআনের অনেক বড় খেদমত আঞ্জাম দিচ্ছেন। কারণ বর্তমান সময়ে নুরানী মাদরাসার শিক্ষার মাধ্যমে কুরআনের অনেক বড় খিদমত হচ্ছে।

নুরানী শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে আল্লামা বাবুনগরী বলেন, নবী করীম সা. বলেছেন, তোমাদের মধ্যে সর্বোত্তম ওই ব্যক্তি যিনি কুরআন মাজিদ শিক্ষা করেন এবং শিক্ষা দেন। অতএব আপনারাই সর্বোত্তম ব্যক্তি। সে হিসেবে আপনাদের অতিরিক্ত কিছু দায়িত্ব পালন করতে হবে। শিক্ষকতা পেশা হিসেবে নয় কুরআনের খেদমত হিসেবে গ্রহণ করতে হবে। পিতৃস্নেহে কোমলমতি শিশুদের পড়াতে হবে। এবং সর্বদা ছাত্র-ছাত্রীদের পড়া লেখার উন্নতি সাধনের জন্য ফিকির করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, ইসলামী শিক্ষাবিহীন কেজি আর কিন্ডারগার্টেনের বিপরীতে শহর থেকে শুরু করে গ্রামে-গঞ্জে প্রতিটি এলাকায় সহিহ কুরআন শিক্ষার জন্য নুরানী মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করে কুরআনের খেদমতকে আরো ব্যাপকভাবে প্রচার প্রসার করতে হবে।

‘আলিয়ার এক প্রিন্সিপালও চাকরি ছেড়ে নুরানী শিক্ষায় যুক্ত হয়েছেন’

-আরআর