২০১৮-০৬-২২

বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮

যানবাহনে বসে কুরআন তেলাওয়াত করা যাবে কি?

OURISLAM24.COM
news-image

রকিব মুহাম্মদ
আওয়ার ইসলাম

পৃথিবীর বুকে মানুষের জন্য আল্লাহ তায়ালার পক্ষ থেকে সর্বশ্রেষ্ঠ উপহার হচ্ছে কোরআনে কারিম। কোরআন তেলাওয়াত শোনার মানে হলো শ্রেষ্ঠ বাণী শোনা। কোরআনে কারিমের তেলাওয়াত স্বতন্ত্র ইবাদত হিসেবে গণ্য। এর ফজিলত অনেক বেশি।

অনেকে বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন অবস্থাতে কুরআন তেলায়াত করে থাকেন। কুরআন তেলাওয়াতের স্থান নিয়ে আমাদের মনে নানান প্রশ্ন রয়েছে। কেউ কেউ মনে করেন, রিকশা বা যানবাহনে বসে কুরআন তেলাওয়াত করা  নিষেধ। ধারণাটা কতটুকু সত্য?

এ প্রসঙ্গে মাওলানা আব্দুল মালেক একটি ঘটনা উল্লেখ করে বলেন,  আমাদের একজন বড় বুযুর্গ ব্যক্তির মুখে তাঁর নিজের এই ঘটনা কয়েকবার শুনেছি যে, একবার তিনি রিকশায় চড়ে কোথাও যাচ্ছিলেন। চালক তাঁর আখলাকে অত্যন্ত প্রভাবিত হয়েছিল।

রিকশা থেকে নেমে বিদায়ের সময় চালক বলল, আপনার ব্যবহার আমার কাছে খুব ভালো লেগেছে। তবে একটি কাজ আপনি ঠিক করেননি। তা হচ্ছে, আপনি রিকশায় বসে বসে কুরআন শরীফ পড়েছেন। এটা ঠিক না!

বলাবাহুল্য, এটা ঐ বেচারার ভুল ধারণা। কারণ চলাফেরা, ওঠা-বসা, শয়ন-জাগরণ সর্বাবস্থায় যিকর করতে কুরআন মজীদে উৎসাহ দেওয়া হয়েছে। আর সর্বোত্তম যিকর হচ্ছে, কুরআন মজীদ তেলাওয়াত।

আরও পড়ুন : ‘কুরআনী শিক্ষার মাধ্যমে সমাজ থেকে অপরাধ দূর করা সম্ভব’