২০১৮-০৬-১১

মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৮

রাঙামাটিতে পাহাড় ধসের আশংকা; প্রস্তুত ২২ আশ্রয় কেন্দ্র

OURISLAM24.COM
news-image

আওয়ার ইসলাম: গতকাল বিকেল থেকে ভারি বর্ষণ আর ঝড়ো হাওয়ার কারণে রাঙামাটি-চট্টগ্রাম সড়কের বেশ কয়েকটি স্থানে বৈদ্যুতিক খুঁটি ও গাছ ভেঙে পড়ে। পরে প্রশাসন ও দমকল বাহিনীর সদস্যরা এসে তা সরিয়ে নেয়।

আজ সোমবার সকাল থেকে ভারি বর্ষণ না হলেও লোকজনের মাঝে আতঙ্ক কাটেনি।
ভারি বর্ষণের কারণে রাঙামাটি শহরের চম্পকনগর, শিমুলতলী, রূপনগরসহ বেশ কয়েকটি স্থানে মাটি ধসে পড়ে। তবে এতে কেউ হতাহত ঘটনা ঘটেনি।

জেলা প্রশাসনের তথ্যমতে পৌর এলাকায় ৬০৯টি পরিবার এবং জেলায় ৩ হাজার ৩৭৮টি পরিবার পাহাড়ের ঝুঁকিতে বসবাস করছে। রাঙামাটি জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশিদ জানান, ঝুঁকিতে বসবাসরত এসব লোকজনদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়ার জন্য বারবার মাইকিং করা হচ্ছে।

ইতোমধ্যে জেলা প্রশাসনের কাছে ৩০০টি তাঁবু এসেছে, এসব তাঁবুর কিছু রূপনগরে টাঙানোর কাজ চলছে। সেনাবাহিনী, স্কাউট ও রেড ক্রিসেন্টের সদস্যরা এসব তাঁবু টাঙানোর কাজ করছে।

তিনি আরও বলেন, যারা ঝুঁকিতে বসবাস করছে তারা যেন দ্রুত সময়ে এসব তাবুতে আশ্রয় নিতে পারে। এছাড়াও শহরে ২২টি আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে। প্রশাসনের বিভিন্ন টিম ঝুঁকি মোকাবেলায় কাজ করছে।

আরো পড়ুন ট্রাফিক আইন না মানায় সাবেক পাক প্রধানমন্ত্রীকে জরিমানা!