রবিবার, ২৪ জুন ২০১৮

‘দলীয় সরকারের অধীনে সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ নির্বাচন আশা করা যায় না’

OURISLAM24.COM
মে ১৫, ২০১৮
news-image

খুলনা প্রতিনিধি: খুলনা সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ হয়নি বলে অভিযোগ করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মেয়র প্রার্থী মাওলানা মুজ্জাম্মিল হক।

খুলনায় ভোট শেষে বিকাল ০৫টায় এক প্রেসব্রিফিংয়ে তিনি এ অভিযোগ করেন।

প্রেস ব্রিফিংয়ে মাওলানা মুজ্জাম্মিল হক বলেন, ব্যর্থ্য নির্বাচন কমিশন ও দলীয় সরকারের অধীনে সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ নির্বাচন আশা করা যায় না। যার প্রমাণ আজকের নির্বাচনে দেখেছেন আপনারা।

বিভিন্ন ভোট কেন্দ্র দখল, ভোট ডাকাতি, ভোটারদের হয়রানি, ভোটারকে ভোট না দিতে দেওয়া, এজেন্টদের বুথ থেকে বের করে দেওয়া, এজেন্টদের মারধর, পুলিশ কর্তৃক জাল প্রদানে সহযোগিতা।  নিরাপত্তার ভয়ে অনেক ভোটাররা ভোট কেন্দ্রেই আসেনি।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি কিছু কেন্দ্রের অনিয়ত তুলে ধরেন সাংবাদিকদের সামনে।

৩০ নং ওয়ার্ড-এ রূপসায় প্রাইমারী স্কুল, হাইস্কুল, ইউসুফ স্কুলের সেন্টারগুলো ভোট প্রদান বন্ধ হয়ে যায়। ১২ নং ওয়ার্ড এর স্যাটেলাইট স্কুল কেন্দ্র জোর করে দখল করে নেয়া হয়।

১২ ও ৩০ এ বিভিন্ন কেন্দ্রগুলোতে নির্বাচনী এজেন্টকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। ১৩ নং এ সকাল থেকেই কাউকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। শুধুই নৌকার ভোটাররা ঢুকছে।

৩১ নং ওয়ার্ড কার্যালয়, লবনচরা প্রাথমিক বিদ্যালয়, শিপইয়ার্ড প্রাথমিক বিদ্যালয় মারামারি হয়েছে। মাওয়াখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ইব্রাহিমীয়া মাদরাসা সেন্টার বন্ধ। ওয়ার্ডের সকল অফিস থেকে লোকজন বের করে দিয়েছে।

ইকবাল নগর স্থগিত (ম্যাজিস্ট্রেট কতৃক), নিরালা টিন সেড সেন্টার বন্ধ। ২২ নং সকল সেন্টার দখলে। ০২ নং এ নগরঘাট কৃষ্ণমোহন স্কুলে, রেলিগেট ও আর, আর এফ এ ব্যাপক কারচুপি হয়েছে। প্রশাসন নিরব।

২৮ নং এর ৬টি কেন্দ্রের মধ্যে ৪টি কেন্দ্র দখলে নিয়েছে। ব্যাপক হারে জাল ভোট দিয়েছে। ১৪ নং মহিলা কলেজ সেন্টার এ বোমা বিস্ফোরণের মাধ্যমে আতংক ছড়ানো হয়েছে। ২৯ এ গগণ বাবু রোড সবুরুন্নেসা সেন্টারে প্রকাশ্যে নৌকায় সিল মারতে বাধ্য করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর নায়েবে আমীর মাওলানা আব্দুল আউয়াল।

উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থীগণনগরীর ১নং ওয়ার্ড জাহাঙ্গীর লস্কর, ২নং বজলুর রহমান, ৩ নং ওয়ার্ড শাহা আলম মীর, ৪ নং ওয়ার্ড জাহাঙ্গীর মোড়ল , ৫ নং ওয়ার্ড মোঃ নাজমুল শিকদার, ৬নং ওয়ার্ড মোঃ তরিকুল ইসলাম কাবির, ৭ নং ওয়ার্ড মোঃ গাজী মিজানুর রহমান, ৮ নং ওয়ার্ড মোঃ শামসুল আলম, ৯ নং ওয়ার্ড মোঃ শওকাত হোসেন, ১০ নং ওয়ার্ড জামাল মুন্সি, ১১নং ওয়ার্ড মোস্তফা হাওলাদার, ১২ নংওয়ার্ড ডাঃ আজমল, ১৩নং ওয়ার্ড, ১৪নং ওয়ার্ড শেখ লুৎফর রহমান, ১৫ নং ওয়ার্ড জি এম কিবরিয়া,১৬নং ওয়ার্ড হাজী মারুফ, ১৭নং ওয়ার্ড আঃ রশিদ, ১৮ নং ওয়ার্ড মুকুল হোসেন, ১৯ নং ওয়ার্ড আলহাজ্ব ফজলুর রহমান, ২০নং শাহাজাহান হাওলাদার, ২১নং ওয়ার্ড শামিমুর আলম ,২২নং ওয়ার্ড ইলিয়াস হোসেন,২৩ নং ওয়ার্ড আলহাজ্ব আবু তাহের,২৪ নং ওয়ার্ড শেখ মোঃ নাসির উদ্দিন, ২৫নং ওয়ার্ড ইমরান হোসেন মিয়া, ২৬নং ওয়ার্ড আকবার আলী পাঠান, ২৭ নংওয়ার্ড ফেরদাউস সুমন, ২৮নং ওয়ার্ড আলঃ ফজলুর রহমান, ২৯নং ওয়ার্ড রুহুল আমিন বিশ্বাস, ৩০ নং ওয়ার্ড ,৩১নং ওয়ার্ড জি এম সজীব মোল্লা।

উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ খুলনা জেলা সভাপতি মাওলানা আব্দুল্লাহ ইমরান, নগর সহ-সভাপতি মাওলানা মুজাফ্ফার হোসাইন, নগর সহ-সভাপতি শেখ মোঃ নাসির উদ্দিন, নগর সেক্রেটারী মুফতী আমানুল্লাহ, জেলা সেক্রেটারী, শেখ হাসান ওবায়দুল করীম, সৌদি আরব কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী হাফেজ আসাদুল্লাহ, নগর সহ-প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুফতী আঃ রহমান মিয়াজী, নগর শ্রমিক আন্দোলনের সভাপতি আলহাজ্ব জাহিদুল ইসলাম , আবুল কালাম আজাদ, ইশা ছাত্র আন্দোলন জেলা সভাপতি শেখ আমীরুল ইসলাম, নগর সভাপতি ইসহাক ফরিদি, বিএল কলেজ সভাপতি হাসানুজ্জামান, এম এ হাসিব গোলদার, নগর সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম, জেলা সহ-সভাপতি এস.কে নাজমুল হাসান,নগর সাধারণ সম্পাদক খালিদ সাইফুল্লাহ, মোঃ আব্দুল্লাহ নোমান , নাজমুল হুদা, বিএল কলেজ সম্পাদক আলআমিন মুফতী নাইমুর রহমান, নাজমুল ইসলাম, জুনায়েদ মাহমুদ, শফিউল হক, হযরত আলী, মাওলানা দ্বীন ইসলাম, আঃ জলিল, জাহাঙ্গীর আলম মিয়া, জাহিদুল ইসলাম, আঃ মান্নান, সেলিম হাওলাদার, মাহবুবুল, রিপন, মারুফ, মোস্তফা, ইবরাহিম আবির, হাসান মামুন, শরিফুল ইসলাম, আলফাত হোসেন লিটন সহউপস্থিত ছিলেন স্থানীয় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, শ্রমিক আন্দোলন, যুব আন্দোলন, ইশা ছাত্র আন্দোলন এর নেতৃবৃন্দ।

শান্তিপূর্ণভাবেই নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে, আমরা সন্তুষ্ট: ইসি

-আরআর