রবিবার, ২৪ জুন ২০১৮

নদীতে তলিয়ে যাওয়া মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজরিত ট্যাঙ্ক উদ্ধার

OURISLAM24.COM
মে ৫, ২০১৮
news-image

আওয়ার ইসলাম: ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় নদীতে তলিয়ে যাওয়া ট্যাংকটি আংশিক উদ্ধার করা হয়েছে। পীরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক গত শুক্রবার দিবাগত রাতে এটি উদ্ধার করা হয়।

জানা যায়, করতোয়া নদীর কাঁচদহ ঘাট বতর্মান এমএ ওয়াজেদে সতুর একটু উত্তরে ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতীয় মিত্রবাহিনীর ট্যাংক বহর করতোয়া নদী পাড়ি দিয়ে পীনগঞ্জে প্রবেশের সময় একটি ট্যাংক নদীরে চারাবালিতে আটকে পড়ে তলিয়ে যায়।

মিত্র বাহিনীর সদস্যরা সেটি উত্তলনের চেষ্টা চালিয়ে ব্যার্থ হয়ে ট্যাংকটি পরিত্যাক্ত ঘোষনা করে চলে যায়। যা রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার টুকুরিয়া ইউনিয়নের দুধিয়াবাড়ী মৌজায় ক’দিন আগে ভেসে ওঠে।

খবর পেয়ে গত ২৭ এপ্রিল রংপুরের জেলা প্রশাসক এনামুল হাবীব ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি ট্যাংকটি শীঘ্রই উত্তলন করা হবে বলে ঘোষনা দেন। তার ঘোষণা অনুযায়ী অবশেষে পীরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন গত শুক্রবার দিনভর চেষ্টা চালিয়ে রাত ১১টার দিকে ট্যাংকটির আংশিক উদ্ধার করে।

প্রত্যক্ষদর্শিরা জানিয়েছেন, দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার করতোয়া নদীর তীর বেষ্টিত কাঁচদহ গ্রামের বাসিন্দা মৃত আব্দুল লতিব মিয়ার পুত্র আলতাব হোমেন (৭৫) ও রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার নিধিরামপুর গ্রামের মৃত নজমুল হোসেনের পুত্র সাখাওয়াত হোসেন জানান,

মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলা সালের অগ্রাহায়ন মাসে ভারতীয় মিত্রবাহিনী অনেকগুলো ট্যাংক নিয়ে করতোয়া নদী পার হয়ে রংপুরের পীরগঞ্জের দিকে যাবার সময় দুপুরে এখানে কাদা আর চোরাবালিতে একটি ট্যাংক আটকে যায়।

সেসময় তারা এটি উদ্ধারে যতই চেষ্টা চালায়, ততই ডেবে যায়। দিনভর চেষ্টা করে সফল না হওয়ায় ট্যাংকটিকে ঐ অবস্থায় রেখে তারা চলে যান। দেশ স্বাধীন হবার ৪/৫ বছর পর এটি জেগে উঠলে বগুড়ার কিছু লোক এসে অনেক যন্ত্রাংশ কেটে কেটে নিয়ে যায়।

এরপর গত ১২ থেকে ১৪ বছর আগে আবার জেগে উঠে। তখনও এর বেশ কিছু অংশ অনেকেই কেটে নিয়ে যায়।মুলত, আগে এটি উদ্ধার বা সংরক্ষনে পদক্ষেপ গ্রহন করা হলে এটি হয়তো অক্ষত থাকতো।

কেএল