শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮

যৌন কেলেঙ্কারিতে ফেঁসে গেলেন যে ৩ গুরু!

OURISLAM24.COM
এপ্রিল ২৫, ২০১৮
news-image

আওয়ার ইসলাম: ভারতে যৌন কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়ছেন সনাতন ধর্মের স্বঘোষিত গুরুরা। আসারামের আগে স্বামী নিত্যানন্দ থেকে শুরু করে গুরমিত রাম রহিম সিং।

২০১৩ সালে ‌যোধপুরে নিজের আশ্রমে এক কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত স্বঘোষিত গুরু আসারাম। শুধু তাই নয় সুরাতের দুই বোনও আসারামের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও জোর করে আটকে রাখার অভি‌যোগ করেছেন।

গুরুমিত রাম রহিম সিংয়ের গ্রেফতারি ঘিরে গতবছর তোলপাড় হয় ভারতজুড়ে। রাম রহিমের বিরুদ্ধে ২ নারীকে ধর্ষণ, এক সাংবাদিকসহ ২ জনকে খুন ও ৪০০ ভক্তকে জোর করে নির্বীজ করার অভি‌যোগ রয়েছে। গত বছর গুরমিত রাম রহিমের শাস্তি ঘোষণার পর, ছক কষে এমন হাঙ্গামা বাধানো হয়েছিল যে, ৩৬ জনের প্রাণ যায়। নষ্ট হয় ২০০ কোটি টাকার সম্পত্তি।

যৌন নি‌র্যাতনের মামলায় অভি‌যুক্ত স্বঘোষিত গুরু স্বামী নিত্যানন্দ। ২০০৯ সালে ওঠা ওই অভি‌যোগ নিয়ে এখনও মামলা চলছে। তার শিশ্য আরতি রাও অভি‌যোগ করেন, তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেছেন নিত্যানন্দ স্বামী।

আসারামের ছেলে নারায়ণ সাঁইও নিজেকে গুরু বলে দাবি করেন। সুরাটের এক নারী অভি‌যোগ করেন ২০০২-২০০৫ সালের মধ্যে নারায়ণ তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। ওই মামলা ২০১৩ সাল তার জেল হয়।

একাধিক ‌যৌন কেলেঙ্কারিতে নাম জড়িয়েছে ‌যোগগুরু বিক্রম চৌধুরীর। তার নিজের আইনজীবীই তার বিরুদ্ধে ‌যৌন নি‌র্যাতনের অভি‌যোগ আনেন। এর জন্য বিক্রম চৌধুরীকে ৬০ লাখ ডলার ক্ষতিপূরণ দিতে হয়।

১৩ জন নারীকে ধর্ষণ করার অভি‌যোগ উঠেছিল স্বামী প্রেমানন্দের বিরুদ্ধে। পরে তা প্রমাণিতও হয়। ১৯৯৭ সালে তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়। ২০১১ সালে তার মৃত্যু হয়।

এইচজে