শুক্রবার, ২০ জুলাই ২০১৮

স্মার্টফোন নিরাপদ রাখার ৫ উপায়

OURISLAM24.COM
এপ্রিল ১৬, ২০১৮
news-image

মুমিনুল ইসলাম:  স্মার্টফোনের ব্যবহার যত বাড়ছে নিরাপত্তাজনিত ঝামেলার যেন পাল্লা দিয়ে দেখা দিচ্ছে। অপারেটিং সমস্যা ও ব্যক্তিগত তথ্য চুরির ঘটনা অহরহ ঘটছে। আর তারকাদের অন্তরঙ্গ ছবি প্রকাশ ও গুরুত্বপূর্ণ টেক্সট ফাঁস হওয়ার খবর প্রকাশ যেন নিয়মিত হয়ে পড়েছে।

তাই স্মার্টফোনটি সব সময় নিরাপদ রাখার দিকে মনযোগী হওয়া উচিত। কিভাবে তা আরও নিরাপদ রাখা যায় তা জানা নেই অনেকের।এ টিউটোরিয়ালে তুলে ধরা হলো কিভাবে আপনার প্রিয় ও প্রয়োজনীয় এ ডিভাইসকে আরও নিরাপদ রাখা যায়।

সফটওয়্যার আপডেট করুন

অপারেটিং সিস্টেমের সব সময় নতুন আপডেট দিতে হবে। ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তার কথা ভেবে গুগলের অ্যান্ড্রয়েড ও অ্যাপলের আইওএস প্রতিনিয়ত নতুন আপডেট দিয়ে থাকে।

নতুন আপডেটগুলোতে নানা ধরনের নিরাপত্তা ক্রুটি (বাগ) ফিক্স করা হয়ে থাকে। তাই ব্যবহারকারীদের উচিত স্মার্টফোনের নিরাপত্তার জন্য অপারেটিং সিস্টেমটি সব সময় আপডেট রাখা।

অহেতুক অ্যাপ ইন্সটল না করা

নানা কৌশলে ফোন হ্যাকিং বা ফোনের মধ্য থেকে তথ্য নেওয়ার চেষ্টা করে থাকে হ্যাকাররা। তাই ফোনে ভাইরাস ও ম্যালওয়্যার যেন না থাকে সে ব্যবস্থা করতে হবে।

এ জন্য অচেনা-অজানা প্রেরকের মেইল বা কোনো অহেতুক অ্যাপ্লিকেশন স্মার্টফোনে ইন্সটল করা যাবে না। কেননা অনেক অ্যাপ্লিকেশনের আড়ালে ভাইরাস লুকিয়ে থকে।হ্যাকাররা বিভিন্ন অ্যাপের মাধ্যমে ফোনে ভাইরাস পাঠায়। এ ব্যাপারে সাবধান থাকতে হবে।

ওয়াই-ফাই আক্রমণ

অনেক সময় পার্ক বা হোটেলে পাবলিক ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্ক পাওয়া যেতে পারে। এমন নেটওয়ার্ক ব্যবহার সবচেয়ে বিপদজনক। কেননা অনেকে ফ্রি ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের কৌশল অবলম্বন করে হ্যাকাররা স্মার্টফোনটির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে তথ্য চুরি করতে পারে।

এন্টি ভাইরাস ব্যবহার

ডিভাইসটিতে যেন ভাইরাস ঢুকতে না পারে সেজন্য সচেতন থাকলেও অনেক সময় ব্যবহারকারীদের অজান্তেই ভাইরাস প্রবেশ করতে পারে। তাই নিরাপত্তার জন্য এন্টিভাইরাস ব্যবহার করা উচিত।

অ্যান্ড্রয়েডের প্লেস্টোরে বা অ্যাপলের আইওএসে রয়েছে নানা এন্টিভাইরাস অ্যাপ। এর মধ্যে উল্লেখ্য হলো এভাস্ট এন্টিভাইরাস।

স্ক্রিন লক ব্যবহার করা

স্মার্টফোনটি নিরাপদে রাখতে লক স্ক্রিন ব্যবহার করা উচিত। কেননা মনের ভুলে ফোনটি কোথায় রেখে গেলে অন্য কেউ স্মার্টফোনটিতে প্রবেশ করে তথ্য হাতিয়ে নিতে পারে। আর হারিয়ে গেলেও ব্যক্তিগত তথ্য চুরির আশংকা থাকে।

তাই স্মার্টফোনটিতে সব সময় স্ক্রিন লক ব্যবহার করা উচিত। এ জন্য পাসওয়ার্ড শক্তিশালী হতে হবে, যেন ধারণা করে অন্য কেউ লক খুলতে না পারে।

  আরো পড়ুন:কোন দেশে ইন্টারনেটের স্পিড কত