বুধবার, ১৮ জুলাই ২০১৮

বিশেষ সফরে দেওবন্দে রিয়াদের শায়েখ ডক্টর আব্দুল আজিজ আম্মার

OURISLAM24.COM
মার্চ ২২, ২০১৮
news-image

তাওহীদ আদনান
দেওবন্দ থেকে
সৌদি আরবের রিয়াদের ইসলামী দাওয়া-ওয়াল ইরশাদের প্রধান উপদেষ্টা শায়েখ ডক্টর আব্দুল আজিজ বিন আব্দুল্লাহ আম্মার আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে দারুল উলুম দেওবন্দে সংক্ষিপ্ত সফরে আসেন৷ সৌদি থেকে দারুল উলুম দেওবন্দ পরিদর্শনের উদ্দেশ্য তিনি আরো দুইজন সফর সঙ্গীসহ দেওবন্দে পৌঁছেন৷ এ সময় দেওবন্দের সিনিয়র উস্তাদগণ  তাদের স্বাগত জানান।

সৌদি থেকে আগত মেহমানগণ দারুল উলুম দেওবন্দের ভিআইপি মেহমান খানায় এসে উঠেন৷ তখন প্রতিষ্ঠানের যিম্মাদার উস্তাদগণ ছাত্রদের উদ্দেশ্যে কিছু নসিহত পেশ করতে আহ্বান জানান তাদেরকে৷ তারা সম্মতি দিলে এক মজলিসও আয়োজন করেন মাদরাসা কর্তৃপক্ষ৷ মজলিসে সকল ছাত্রদেরকে বিশেষভাবে উপস্থিত থাকার মর্মে একটি ঘোষণাপত্রও প্রকাশ করা হয় মাদরাসা থেকে৷

বাদ যোহর মসজিদে রশিদে মাদরাসার কেরাত বিভাগের অন্যতম উস্তাদ ক্বারী  আফতাবুদ্দীনের কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হয় মজলিস৷ প্রায় একঘন্টা দীর্ঘায়িত হয় উক্ত মজলিস৷ মজলিসের শুরুতেই মাদরাসার দারুল ইক্বামার পক্ষ থেকে ছাত্রদের উদ্দেশ্যে বেশ কিছু অঙ্গীকারনামা পড়ে শোনান প্রতিষ্ঠানটির মুহতামিম মুফতী আবুল কাসেম নোমানী৷ অঙ্গীকারনামার মাঝে বিশেষভাবে গুরুত্বের সাথে তিনি বলেন, দেওবন্দের কোনো ছাত্রই কোনো ভাবে কারো দোষ ত্রুটি অন্বেষণ ও চর্চায় লিপ্ত হবে না৷

প্রতিষ্ঠানের মুহতামিম মুফতী আবুল কাসেম নোমানী আলোচনা শেষ করলে ছাত্রদের উদ্দেশ্যে নসিহত পেশ করেন সৌদি মেহমান আব্দুল আজিজ বিন আব্দুল্লাহ আম্মার৷ তিনি সংক্ষিপ্ত আলোচনায় দেওবন্দ সম্পর্কে তার অনুভূতি তুলে ধরেণ এবং ছাত্রদের উদ্দেশ্য বয়ান করেন৷ বয়ান শেষ হলে সৌদি মেহমানগণ দারুল উলুম দেওবন্দের সিনিয়র মুহাদ্দিস আওলাদে রাসূল মাওলানা সাইয়েদ আরশাদ মাদানী দা. বা. -এর বাসায় মেহমান হন৷

সৌদি মেহমান ড. আব্দুল আজিজ বিন আব্দুল্লাহ আম্মার ছাত্রদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমি সর্বপ্রথম আল্লাহ তাআলার প্রশংসা আদায় করছি যে আল্লাহ তাআলা আমাকে এমন এক খালেস ইলমী প্রতিষ্ঠানে নিয়ে এসেছেন যেখানে দ্বীনের সঠিক তা’লীম ও তারবিয়াত দেওয়া হয় ৷ এরপর তিনি দেওবন্দের উস্তাদদের প্রতিও কৃতজ্ঞত জ্ঞাপন করেন৷

তিনি বলেন আমার সবচেয়ে খুশী লাগছে আমি এমন এক প্রতিষ্ঠানে এসেছি যেখানে এমন তা’লীম দেওয়া হয় যা একমাত্র কুরআন ও সুন্নাহের সঠিক মাপকাঠি৷ আর এই প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠার অন্যতম কারণ হচ্ছে কুরআন-সুন্নাহ’র হুকুম সাব্যস্ত করা এবং তা’লীমের মাধ্যমে মানুষের মাঝে কুরআন-সুন্নাহর সঠিক বানী পৌঁছে দেয়া৷ উপরন্তু মানুষের মাঝে যে সকল বিদআত ও কুসংস্কার রয়েছে তা উৎখাত করা৷

তিনি আরো বলেন, আমি আরো চার বছর আগে একবার সৌদী আরবের ধর্ম বিষয়ক ওযীরে আ’লার সাথে এখানে এসেছিলাম৷ তখন থেকেই এই প্রতিষ্ঠানের সহিহ মাসলকের কারণে এই প্রতিষ্ঠানের প্রতি আমার টান৷ সেই টানেই আবারও চলে আসলাম এই প্রতিষ্ঠানের যিয়ারতে৷

তিনি আরো বলেন এই প্রতিষ্ঠানের অন্যতম প্রধান বিষয় হলো কুরআন ও সুন্নাহ’র হুকুম আহকাম প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি তাযকিয়ায়ে নফস তথা আত্মশুদ্ধির প্রতি গুরুত্বারোপ করা
যা পৃথিবীর অন্যান্ন প্রতিষ্ঠানে দুর্লভ৷ স্বাভাবিকভাবে পাওয়া যায় না বললেই চলে ৷

তিনি আরো বলেন বর্তমান সময়ের কুসংস্কার ও কুপ্রথার বিরুদ্ধে দারুল উলুম দেওবন্দ প্রধান ভুমিকায় রয়েছে৷ আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের সহিহ মাসলাককেও ধারণ করে রেখেছে দারুল উলুম দেওবন্দ৷ তাই মুসিলম বিশ্বের সকলেরই উচিত কুরআন ও সুন্নাহর উপর অটল থাকতে দারুল উলুম দেওবন্দের পদাঙ্ক অনুসরণ করে পথ চলা৷

সংক্ষিপ্ত সময়ের এই মজলিস সঞ্চালনায় ছিলেন দারুল উলুম দেওবন্দ থেকে প্রকাশিত আরবী মাসিক পত্রিকা আদ-দায়ী এর সম্পাদক ও দেওবন্দের সিনিয়র উস্তাদ মাওলানা আরীফ জামিল৷ মজলিসে উপস্থিত ছিলেন মাদরাসার মুহতামিম, নায়েবে মুহতামি, নাযেমে তালিমাতসহ অন্যান্য সকল যিম্মাদর উস্তাদগণ ও ছাত্ররা৷ উপস্থিত ছিলেন দেওবন্দ সংলগ্ন অন্যান্য মাদরাসার ছাত্র ও উস্তাদগণও৷

এইচজে