রবিবার, ২৪ জুন ২০১৮

রোহিঙ্গা নির্যাতনের চিহ্ন মুছতে রাখাইনে চলছে বুলডোজার

OURISLAM24.COM
ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৮

আওয়ার ইসলাম: মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের নির্যাতনের চিহ্ন মুছতে বুলডোজার চালাচ্ছে সরকার। স্যাটেলাইট ক্যামেরায় এমনটাই দেখা গেছে দেশটিতে।

রাখাইনে আগুনে পোড়া ঘরবাড়ি, হত্যাযজ্ঞ, ধর্ষণ ও সবরকম বর্বরতার চিহ্ন মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিতে কাজ করেছে সেনাবাহিনী। শোনা যাচ্ছে ওখানে কলকারখানার কাজও শুরু করেছে মিয়ানমার সরকার।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম এপি’র কলোরাডোভিত্তিক ‘ডিজিটালগ্লোব’ জানিয়েছে, জনমানবহীন কয়েকডজন ঘরবাড়ি ও ঐতিহাসিক স্থাপনা সম্প্রতি বুলডোজার দিয়ে মাটিতে মিশিয়ে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। যা ধারণারও বাইরে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে এক নারী জানান, সবকিছুই শেষ, গাছপালাগুলোও আর অবশিষ্ট নেই। তারা বুলডোজার দিয়ে সবকিছু গুঁড়িয়ে দিয়েছে… এখানে আমার ঘরবাড়ি ছিলো বুঝতেও কষ্ট হয়েছে।

মিয়ানমারে ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত ক্রিস্টিয়ান স্মিটের টুইটার অ্যাকাউন্টে গত ৯ ফেব্রুয়ারি পোস্ট করা ছবিতে বিস্তৃত এলাকা মাটিতে মিশিয়ে দেওয়ার দৃশ্য প্রথমবার বিশ্ববাসীর সামনে উঠে আসে। যা রাখাইনে নতুন করে আতঙ্কজনক পরিস্থিতির চিত্র ফুটিয়ে তুলেছে।

ডিজিটালগ্লোব’র প্রকাশিত উপগ্রহ চিত্রে দেখা যায়, অন্তত ২৮টি গ্রাম বা ঐতিহাসিক স্থাপনা বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। মংডু ও আর পার্শ্ববর্তী ৫০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে গত বছরের ডিসেম্বর থেকে চলতি ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এ ধ্বংসযজ্ঞ চালানো হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিবেদিত রোহিঙ্গাদের উর্দু সঙ্গীত