শনিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৮

ভালুকায় কারখানার বাসে ধর্ষণের শিকার নারী শ্রমিক

OURISLAM24.COM
ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৮
news-image

আওয়ার ইসলাম: ময়মনসিংহের ভালুকায় কর্মস্থল থেকে কারখানার বাসে করে বাসায় ফেরার পথে ১৪ বছর বয়সী এক নারী শ্রমিক ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় বাস ড্রাইভার শামীম ও হেল্পার হাফিজুলকে গ্রেফতার করেছে ভালুকা মডেল থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত হাফিজুল ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। এ ব্যাপারে ধর্ষিতার বাবা বাদী হয়ে শনিবার রাতে একটি ধর্ষণ মামলা (নং ১৭) দায়ের করেছেন।

ধষির্তার পরিবার ও থানা সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় বাদশা টেক্সটাইল মিলে ফিনিশিং সেকশনে আছিয়াা আক্তার কাজ করতেন। অন্যান্য দিনের মতো শুক্রবার রাতে কারখানার বাসে করে সে বাসায় ফিরছিল। বাসের হেল্পার হাফিজুল কিশোরীকে নির্ধারিত স্থানে নামতে না দিয়ে ঘটনাস্থলে নিয়ে যায় এবং তাকে বাসে আটকে রেখে ধর্ষণ করে।

পরদিন তার কর্মস্থলে গিয়ে সে বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানায়। পরে কারখানা কর্তৃকপক্ষ ভালুকা মডেল থানাকে অবহিত করলে পুলিশ ড্রাইভার শামীম ও হেল্পার হাফিজুলকে গ্রেফতার করে।

মেয়েটির মা জানান, তার মেয়ে প্রতিদিনের মত রাতে বাসায় না ফেরায় পরদিন মেয়ের খোঁজে অফিসে গেলে অফিসের লোকজন তাকে ঘটনাটি জানায়। পরে শনিবার রাতে এ ঘটনায় মেয়ের বাবা বাদি হয়ে ড্রাইভার শামীম ও হেল্পার হাফিজুলকে আসামী করে ভালুকা মডেল থানায় ধর্ষণ মামলা (নম্বর-১৭) দায়ের করেন।

ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মামুন অর রশিদ জানান, গ্রেফতারকৃত হেল্পার হাফিজুল ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। ভিকটিমকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এইচজে