রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮

পদ্মা সেতুর কাজ ‘যথাসময়ে’ শেষ হবে : কাদের

OURISLAM24.COM
জানুয়ারি ২০, ২০১৮
news-image

আওয়ার ইসলাম :  পদ্মা সেতুর অগ্রগতি অর্ধেকেরও বেশি হয়েছে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, পদ্মা সেতুর কাজ ‘যথাসময়ে’ শেষ হবে।

শনিবার দুপুরে মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ের মাওয়া এলাকায় পদ্মাসেতুর কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন মন্ত্রী। আগামী ২ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া সফরের দিন তিনি পদ্মা সেতুর কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করতে পারেন বলেও জানান তিনি।

মোট ৪২টি পিলারের ওপর তৈরি হচ্ছে দেশের সবচেয়ে বড় সেতুটি। আর এর মধ্যে বসবে স্টিলের ৪১টি স্প্যান। গত ৩০ সেপ্টেম্বরে প্রথম স্প্যানটি বসানোর পর প্রতি মাসে একটি করে স্প্যান বসানোর কথা ছিল। সেই হিসাবে এখন তিনটি স্প্যান বসিয়ে চারটি বসে যাওয়ার কথা।

কিন্তু এরপর দেখা দেয় জটিলতা। বেশ কিছু এলাকায় মাটির নীচে গভীর কাদার স্তর পাওয়া যায়। এ জন্য পিলারের জন্য পাইলিং করা কঠিন হয়ে পড়ে। আর এ কারণে বেশ কিছু পিলারের নকশায় পরিবর্তন আনার উদ্যোগ নেয়া হয়।

গত বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে এক প্রশ্নোত্তর পর্বে ওবায়দুল কাদের জানান, মোট ১৪টি পিলারের নকশা পাল্টাচ্ছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, পদ্মা সেতুর কাজের সার্বিক অগ্রগতি হয়েছে ৫১ দশমিক ৫ শতাংশ। এ ছাড়া মূল প্রকল্পের কাজের ৫৬ শতাংশ শেষ হয়েছে। আর চলতি সপ্তাহে সেতুর দ্বিতীয় স্প্যান বসবে।
এ সময় সেতুমন্ত্রী জানান, ফেব্রুয়ারি মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতুর কাজের অগ্রগতি দেখতে আসবেন।

এ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, ২ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী মাওয়া হয়ে টুঙ্গিপাড়া যাবেন। এ সময় তিনি পদ্মা সেতুর কাজের অগ্রগতি ঘুরে দেখবেন।

জানা গেছে, পদ্মা সেতুতে ৪২টি খুঁটির (পিলার) ওপর মোট ৪১টি স্প্যান বসানো হবে। এক খুঁটি থেকে আরেক খুঁটির দূরত্ব ১৫০ মিটার। এই দূরত্বের লম্বা ইস্পাতের কাঠামো বা স্প্যান জোড়া দিয়েই মুন্সিগঞ্জের মাওয়া ও শরীয়তপুরের জাজিরার মধ্যে দ্বিতলবিশিষ্ট এই সেতু নির্মিত হবে।