শুক্রবার, ২২ জুন ২০১৮

পাবনায় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী শোভাযাত্রায় পুলিশের সঙ্গে বিএনপি ও ছাত্রদলের সংঘর্ষ, আহত ২০

OURISLAM24.COM
জানুয়ারি ১, ২০১৮
news-image

ডেস্ক: ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত শোভাযাত্রায় বাধা দেয়াকে কেন্দ্র করে পাবনায় ‍পুলিশের সঙ্গে ছাত্রদল ও বিএনপি নেতা কর্মীদের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে  দুই পুলিশ সদস্যসহ বিএনপির ২০ নেতা ও কর্মী আহত হয়েছে।

আজ সোমবার পহেলা জানুয়ারি ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ছিলো। এ উপলক্ষে পাবনা জেলা ছাত্রদল ও বিএনপি শোভাযাত্রার আয়োজন করে । শোভাযাত্রা শুরু হলে পুলিশ বাধা দিলে সংঘর্ষ শুরু হয়।

পুলিশ নেতাকর্মীদের লাঠিপেটা এবং তাঁদের ওপর কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ সময় পুলিশ বিএনপি ও ছাত্রদলের ২৬ নেতাকর্মীকে আটক করেছে

ছাত্রদল ও বিএনপির নেতাকর্মীরা জানায়, ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দুপুর ১টায় জেলা বিএনপি কার্যালয় থেকে একটি শোভাযাত্রা বের করার চেষ্টা করে বিএনপি ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। এ সময় দলীয় কার্যালয়ের সামনেই পুলিশ ওই শোভাযাত্রায় বাধা দেয়।

পরে ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা পুলিশের বাধা উপেক্ষা করে শোভাযাত্রা করতে গেলে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া শুরু হয়। একপর্যায়ে নেতাকর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করলে পুলিশও লাঠিপেটা এবং পরে কাঁদানে গ্যাস ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে।

সংঘর্ষে পাবনা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী খন্দকার হাবিবুর রহমান তোতা দপ্তর সম্পাদক জহুরুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য হাসান জাফির তুহিন, আবুল কাশেমসহ অন্তত ২০ নেতাকর্মী আহত হন।

আহতদের মধ্যে কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও অ্যাগ্রিকালচার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলঅদেশের (অ্যাব) মহাসচিব কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিনকে  হেলিকপ্টারে করে রাজধানীর একটি হাসপাতালে এবং বিএনপিকর্মী আবুল কাশেমকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে ঘটনার পর থেকে শহরে উত্তেজনা বিরাজ করছে। বিভিন্ন স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন ও টহল জোরদার করা হয়েছে।

বিএনপি চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বলেন, ‘বিনা উসকানিতে পুলিশ গুলি বর্ষণ করে এবং লাঠিচার্জ করে।

এসএস/