২০১৭-১২-২২

বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮

রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে আলেমদের যৌথ কমিটি দরকার: মুফতি মোহাম্মদ আলী

OURISLAM24.COM
news-image

জুনায়েদ শোয়েব
বিশেষ প্রতিবেদক

২১ ডিসেম্বর আওয়ার ইসলাম টোয়েন্টেফোর ডটকম আয়োজিত “মানবতার নবী হজরত মুহম্মদ সা. রোহিঙ্গা সঙ্কট : সঙ্কটে বাংলাদেশ” শীর্ষক মতবিনিময় সভায় আলোচনায় অংশ নেন জামিয়া ইদারাতুল উলুম আফতাবনগর মাদরাসার মুহতামিম ও বেফাকুদ্যিনিয়ার মহা সচিব মুফতি মোহাম্মদ আলী।

রোহিঙ্গা শিবিরে আলেমদের কাজ করতে দেয়া হচ্ছে না জানিয়ে তিনি বলেন, সরকারের সাথে আলোচনার মাধ্যমে এর প্রতিকার করা প্রয়োজন । এক্ষেত্রে আলেমদের একটি শক্তিশালী যৌথ কমিটি করা দরকার যারা সরকারি অনুমতি নিয়ে সেনাবাহিনীর পাশাপাশি কাজ করবে।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যার শুরুতে আলেমগণই ঝাপিয়ে পরেছিলো। সারাদেশের জনগণকে রোহিঙ্গাদের প্রতি সহমর্মী করেছিলো। সেই আলেমদেরই এখন কাজ করতে দেয়া হচ্ছে না।

এজন্য শুধু সেমিনার করে ক্ষান্ত হলেই হবে না, কার্যকরী পদক্ষেপের জন্য আন্তরিকভাবে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা নিতে হবে।

এ জন্য মুফতি মোহাম্মদ আলী কিছু প্রস্তাব তুলে ধরেন। প্রথমত কিছু প্রতিনিধিত্বশীল আলেমদের নিয়ে মিটিং করা। তারা পরবর্তীতে সরকারের উচ্চ পর্যায়ে আলোচনা করে রোহিঙ্গা শিবিরে কাজ করার পরিবেশ তৈরি করবে এবং এর মাধ্যমে স্থায়ীভাবে সরকারি নিবন্ধিত সংগঠন করা হবে।

এই সংগঠন বর্তমানে রোহিঙ্গা শিবিরে কাজ করার পাশাপাশি পরবর্তীতে জাতীয় দূর্যোগেও কাজ করবে। এই কাজগুলো মিডিয়াতে প্রচারের জন্য জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক মিডিয়া কর্মীদের নিয়ে মতবিনিময় সভা করবে।

তিনি এও বলেন, আলেমগণ যে সমস্ত কাজ করেছে ইতিপূর্বে তার একশ ভাগের এক ভাগও মিডিয়ায় প্রচার হয় নি। তাই মিডিয়াকেও গুরুত্ব দিতে হবে।

মিডিয়ার গুরুত্ব দিয়ে তিনি আওয়ার ইসলামের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, কোন বিপ্লবের জন্য, দেশের পরিবর্তনের জন্য, মানসিক পরিবর্তন দরকার। আর মানসিক পরিবর্তনের জন্য মিডিয়া খুব গুরুত্বপূর্ণ।
এক্ষেত্রে আওয়ার ইসলাম আমাদের সকলের গুরুত্বপূর্ণ কাজটি করে দিচ্ছে।

এই মিডিয়াকে কেন্দ্র করে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হওয়া দরকার। আমাদের চিন্তাধারা উন্নত করা দরকার।

তিনি আওয়ার ইসলামকে তার সতন্ত্রতা ধরে রেখে বস্তুনিষ্ঠতা, বাস্তবমুখী পদক্ষেপ এবং যে আন্তরিক চিন্তাধারা নিয়ে চলছে সেই অবস্থানে সুদৃঢ় থাকার আহবান জানান।

তিনি সতর্ক করে বলেন, যাদের অবস্থান তৈরি হয়ে যায় তাদের অনেকেই কিনে নিতে চায়। আওয়ার ইসলাম এখন অবস্থানে আছে এটিকে কেউ যেনো ব্যবহার করতে না পারে।

তিনি আওয়ার ইসলামের প্রতি সবাইকে সহযোগী মনোভাব রাখার উদাত্ত আহবান জানিয়ে তার বক্তব্য শেষ করেন।

আরও পড়ুন

‘আওয়ার ইসলাম; অল্প সময়ে এতো সাড়া দেখে আশ্চর্য ও অভিভূত হয়েছি’

‘রোহিঙ্গা সমস্যা মানবিক সংকট! একে ধর্মীয় সংকট বলা উচিৎ নয়’

মুফতী ওয়াক্কাসের প্রতি জমিয়ত সভাপতির খোলা চিঠি

‘রোহিঙ্গা সঙ্কট উত্তরণের পথ আমরা জানি কিন্তু উচ্চারণের সাহস পাই না’