সোমবার, ২৫ জুন ২০১৮

টয়লেটে ফোন ব্যবহার; ছড়াতে পারে নানান রোগ!

OURISLAM24.COM
নভেম্বর ২৩, ২০১৭
news-image

কাউসার জামিল
ফিচার রাইটার

মোবাইল আমাদের নিত্যদিনের সঙ্গী। রাস্তা-ঘাট, বাজারহাট সবখানে সবজায়গায় মোবাইল ছাড়া আমরা বড্ড একা । অনেকে আবার টয়লেটেও নিয়ে যায় মোবাইল। কিন্তু বিশেষজ্ঞদের মত টয়লেটে মোবাইল ব্যবহার করা স্বাস্থের জন্য ক্ষতিকর। আপনি যদি টয়লেটে মোবাইল সাথে প্রবেশে অভ্যস্থ হন, তাহলে এখনই সাবধান হয়ে যান।

২০১৬ সালে একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ৪১ শতাংশ অস্ট্রেলিয়ার বাসিন্দা এবং প্রায় ৭৫ শতাংশ আমেরিকাবাসী টয়লেটে ফোন ব্যবহার করেন। সেই তালিকায় রয়েছেন ভারতীয়রাও। শুধু মোবাইল নয়, অনেকে আবার তাঁদের ট্যাবলেটও নিয়ে যান টয়লেটে।

গবেষকেরা জানাচ্ছেন, মোবাইলের কভার রাবারের তৈরি। সেখানে বাসা বাঁধে যাবতীয় ক্ষতিকর ভাইরাস ও ব্যাকটিরিয়া। বাথরুমের ফ্লাশ, কল বা দরজার লক ব্যবহারের পর মোবাইলের স্ক্রিনে হাত দিলে সেখানেও জন্মাতে পারে সালমোনেল্লার মতো ভয়ঙ্কর ব্যাকটিরিয়া। যা থেকে হতে পারে টাইফয়েডের মতো রোগ।

কী ভাবে ছড়াতে পারে রোগ?
গবেষকেরা জানাচ্ছেন, টয়লেটের ভিজে পরিবেশে ব্যাকটিরিয়া দ্রুত বংশবৃদ্ধি করে। ঠিক ভাবে হাত না ধোওয়া বা টয়লেট ব্যবহারের সময় সেই জায়গায় মোবাইল রাখার ফলে তাতে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে সালমোনেল্লা, ই.কোলাই, সিগেল্লা এবং ক্যামফাইলোব্যাকটরের মতো ব্যাকটিরিয়া। ফোনের টাচস্ক্রিনে গ্যাসট্রো এবং স্ট্যাপের মত ক্ষতিকর ভাইরাস জন্মাতে পারে বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

টয়লেটে ব্যবহারের পর সেই ফোন আমরা বিছানায় বা খাবার জায়গায় রাখি এবং সেখানেও ব্যবহার করি। চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, মোবাইলে বাসা বাঁধা এই ক্ষতিকর ভাইরাস ও ব্যাকটিরিয়া খাবারের সঙ্গে লালায় মিশে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে শরীরে।

আরও ভয়ানক ব্যাপার হচ্ছে মোবাইল ফোনটি ব্যবহার করার সময় যখন গরম হয়ে যায় তখন ব্যাকটেরিয়াগুলোও তাঁদের বংশবিস্তার করার উপযোগী পরিবেশ পায়।

ফলে ব্যাকটেরিয়া বেড়ে যায়। আর সকালের নাস্তা খাওয়ার সময় মোবাইল ফোন ব্যবহার করা হাতেই যখন খাবার খাওয়া হয়, তখন ব্যাকটেরিয়াগুলো সরাসরি চলে যায় পেটে।

 টয়লেট ব্যবহারের পর ঠিক ভাবে হাত না ধুয়ে মোবাইল ব্যবহার করেন অনেকে। তার থেকেই ছড়ায় রোগ। কোনও কোনও গবেষকের মতে, মোবাইল অন থাকলে এবং ক্রমাগত ব্যবহারের ফলে তার তাপমাত্রা এমনিতেই বেশি থাকে। এই তাপ ব্যাকটিরিয়াদের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

আরএম