শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮

বাহরাইনে শীর্ষ আলেমদের বৈঠক

OURISLAM24.COM
মে ১০, ২০১৭
news-image

ওসমান সাদেক: গতকাল রাত বাদ এশা ডিস্কভার ইসলাম বাহরাইনের দাওয়া বিভাগের প্রধান আল্লামা শায়খ আহমদ খানের বাসভবনে শায়খের সভাপতিত্বে ওলামায়ে কেরামের এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান মেহমান হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বেফাকুল মাদারিসিল আরবিয়া পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের যিম্নাদার, জামেয়া বিন্নুরী টাউন করাচীর শিক্ষা পরিচালক হযরত মাওলানা এমদাদুল্লাহ। মতবিনিময় সভায় বাহরাইনি ওলামা ছাড়াও বাংলাদেশ,পাকিস্তান ও ভারতের প্রবাসী বিশিষ্ট আলেমগণ উপস্থিত ছিলেন।

মাওলানা এমদাদুল্লাহ তাঁর বক্তব্যে মুসলিম বিশ্বে পাকিস্তানের ভুমিকা এবং দীনের বহুমুখী খিদমাতে পাকিস্তানের কওমি মাদরাসাগুলোর অবদান নিয়ে বিশদ আলোচনা করেন। তিনি বলেন, বেফাক হল গোটা পাকিস্তানের সকল কওমি মাদরাসার একটি মাত্র শিক্ষা বোর্ড। যার অধীনে প্রায় বিশহাজার দীনি মাদরাসা রয়েছে।

এবার বেফাকের অধীনে দুই লক্ষ তিয়াল্লিশ হাজার, সাত শত জন ছাত্র বার্ষিক পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেছে। বেফাক ভুক্ত কওমি মাদরাসা থেকে এবার রেকর্ড সংখ্যক ছাত্র হিফজ সম্পন্ন করেছে। এবারের হাফেজ সংখ্যা ছিল প্রায় বাষট্টি হাজার। তিনি বলেন, কওমি মাদরাসাগুলো হল আদর্শ মানব তৈরীর কারখানা। সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের সাথে এর কোন সম্পর্ক নেই। তিনি কওমি মাদরাসার দায়িতশীলদের উদ্দেশ্যে বলেন, প্রসাশনের লোকদের মাদরাসা পরিদর্শনে দাওয়াত দেয়া উচিত। এতে করে কওমি মাদরাসার প্রতি তাদের নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গীর পরিবর্তন হবে।

এ প্রসঙ্গে তিনি ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে বলেন, এবার আমরা আমাদের জামেয়া বিন্নুরী টাউনের খতমে বুখারী মাহফিলে করাচীর পুলিশ প্রধানকে দাওয়াত করি। তিনি জামেয়ার দীনি ও শান্তিময় পরিবেশ দেখে বিমোহিত হয়ে পড়েন। মাহফিলে দেয়া বক্তব্যে পুলিশ প্রধান বলেন, আজকের ঈমানি পরিবেশে এসে আমি মানসিকভাবে এক স্বর্গীয় শান্তি অনুভব করছি। মনে হয় যেন একটি জান্নাতের টুকরায় এসেছি।

জনাকীর্ণ এ মতবিনিময় সভায় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন শায়খ ছালাহুদ্দীন নদভী, শায়খ হারুন আযীযি নদভী, শায়ফ সামী, মুফতি আমীনুদ্দীন, মুফতি ওসমান সাদেক, মাওলানা সায়েম, মাওলানা মুহিব্বুল্লাহ, কারী ইউসুফ, মাওলানা খলীল প্রমুখ।

এসএস/