172875

বিতর্কের মুখে ঢাবি ‘ক’ ইউনিটের ফল স্থগিত

আওয়ার ইসলাম: বিতর্কের মুখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিটের অধীন স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার প্রকাশিত ফল স্থগিত করা হয়েছে। রবিবার (২০ অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে স্থগিতের নোটিশ দিয়েছে প্রশাসন।

এর আগে একইদিন দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার একমাস পর ফল প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত ফলে অসামঞ্জস্য ও ভুল ফল প্রকাশের অভিযোগ ওঠে। এজন্য ফল বাতিল করে পুনরায় খাতা মূল্যায়নের দাবি জানিয়েছে অনেক পরীক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা। এর প্রেক্ষিতে ফল স্থগিত করে ঢাবি প্রশাসন।

সরেজমিনে জানা যায়, ‘ক’ ইউনিটের গণিত অংশের ফলে অনেক পরীক্ষার্থীর ফল ভুল হয়েছে। তারা অভিযোগ করেছেন, গণিত অংশের ফল উল্টো দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ অনেক শিক্ষার্থীর গণিত অংশে ১০ প্রশ্ন সঠিক ও তিনটি প্রশ্ন ভুল হয়েছে বলে তারা ভর্তি পরীক্ষার পর মিলিয়ে দেখেছিলেন। কিন্তু ফলে দেখা যায়, বিষয়টি পুরো উল্টো। অর্থাৎ তিনটি সঠিক ও ১০টি ভুল দেখাচ্ছে। আবার অনেকে অন্য সব বিষয়ে ভালো নম্বর পেলেও গণিত অংশে ১৫টি ভুল উত্তর দেখাচ্ছে।

এভাবে অনেক শিক্ষার্থীই একই অভিযোগ তুলেছেন। তারা অভিযোগ করছেন, সবার ক্ষেত্রেই গণিত অংশের ফল উল্টো হয়েছে। এটা ফল তৈরির ভুল। ভুল উত্তরের সংখ্যার জায়গায় সঠিক উত্তরের সংখ্যা এবং সঠিক উত্তরের সংখ্যার জায়গায় ভুল উত্তরের সংখ্যা বসিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এদিকে, খাতা পূনর্মূল্যায়নের সুযোগ থাকলেও খাতা পূনর্মূল্যায়ন নয় পুরো ফল বাতিল করে নতুন করে সকল খাতা মূল্যায়নের দাবি জানিয়েছেন অনেক পরীক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবক। তাদের দাবি, গণিত অংশে ভুলের বদলে সঠিক এবং সঠিকের বদলে ভুল উত্তর এসেছে। এর ফলে যে শিক্ষার্থীর ১০টি উত্তর ভুল এবং ৫টি সঠিক হয়েছে কিন্তু তার ফল এসেছে ১০টি সঠিক এবং ৫টি ভুল। স্বাভাবিকভাবেই সে খাতা পুনর্মূল্যায়নের জন্য আবেদন করবে না। ফলে অনেক অযোগ্য পরীক্ষার্থী যারা গণিত অংশে অকৃতকার্য হতো তারাও উল্টো ফলের জন্য মেধা তালিকায় অনেক এগিয়ে গেছে।

আরএম/

ad

পাঠকের মতামত

Comments are closed.