169274

ঠাকুরগায়ের পীরগঞ্জে মাদরাসা ছাত্র নিখোঁজ

আওয়ার ইসলাম: ঠাকুরগায়ের পীরগঞ্জে আবারো ইয়াসিন আলী নামে এক মাদরাসা ছাত্র নিখোঁজ হয়েছে। ১৭ দিন ধরে তার কোন খোজ পাওয়া যাচ্ছে না।

সে পৌর শহরের জগথা হুজুরপাড়া জামিয়া আরাবিয়া সমশেরিয়া মাদ্রাসায় কোরআন শিক্ষার আবসিক ছাত্র হিসেবে ভর্তি হওয়ার দু’দিন পর থেকে নিখোঁজ রয়েছে।

তার বাড়ি রানীশংকৈল উপজেলার ভরনিয়া চেংবাড়ি গ্রামে। এ ঘটনায় তার পিতা জাহিরুল ইসলাম পীরগঞ্জ থানায় জিডি করেছেন।

জিডি এবং নিখোঁজের পারিবারিক সুত্র জানায়, নিখোঁজ ইয়াসিন রানীশংকৈল উপজেলার ভরনিয়াহাট গোরস্তান এতিমখানা ও লিল্লাহ বোডিং এ থেকে নাজার বিভাগে পড়াশুনা করছিল।

ঐ এতিমখানার প্রধান মোজাফ্ফর হোসেন গেল ২৪ আগষ্ট শিক্ষার্থী ইয়াসিন, সামিম, রায়হা এবং আব্দুর রহমানকে পীরগঞ্জের জামিয়া আরাবিয়া সমশেরিয়া মাদ্রাসায় এনে কোরআন শিক্ষায় আবাসিক শিক্ষার্থী হিসেবে ভর্তি করে দেন।

সেখানে আবাসিকে থেকে তারা শিক্ষা গ্রহন করছিল কিন্তু ভর্তি হওয়ার দু’দিন পর ২৬ আগষ্ট থেকে নিখোঁজ হয় ইয়াসিন। এর পর থেকে তাকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

খবর পেয়ে তার বাড়ির লোকজনও বিভিন্ন জায়গায় খোজাখুজি করেন। তাকে না পেয়ে অবশেষে গেল ৮ সেপ্টেম্বর তার পিতা পীরগঞ্জ থানায় জিডি করেছেন যার নম্বর ৩৫১। ছেলেকে খুজে না পেয়ে তার মা মুক্তারা বেগম ভেঙ্গে পড়েছেন।

এদিকে গেল ১৫ ফেব্রুয়ারী থেকে সাকিব নামে অপর এক মাদ্রাসা ছাত্র নিখোঁজ রয়েছে। তারও বাড়ি রাণীশংকৈল উপজেলার ১নং ধর্মগড় ইউনিয়নের ধুলঝারী গ্রামের। সে পীরগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা মাদ্রাসার কিতাব বিভাগের অধ্যয়ন করছিল।

এ ঘটনায় সাকিবের ভাই মিঠুন আলী থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন (জিডি নং ১৩০, তারিখ: ০৪-০৩-২০১৯ইং) কিন্তু এখনো তাকে খুজে পাওয়া যায় নি।

এ বিষয়ে পীরগঞ্জ থানার ওসি বজলুর রশিদ জানান, মাদ্রাসা ছাত্র নিখোজের বিষয়ে জিডি হয়েছে। অনুসন্ধান চলছে এবং বিষয়টি বিভিন্ন থানায় জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

-এটি

ad

পাঠকের মতামত

Comments are closed.