২০১৯-০১-১৮

শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

‘চীন মুসলিমদের বিরুদ্ধে নির্যাতন বন্ধে বিশ্ব বিবেককে জাগ্রত হতে হবে’

OURISLAM24.COM
news-image

আওয়ার ইসলাম: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী বলেছেন, বিশ্ব মোড়ল দাবীদার কমিউনিষ্ট চীন উইঘুরের মুসলিমদের সাথে মানবতা বিরোধী অপরাধ করছে। প্রায় বিশ লাখ মুসলিম নারী, পুরুষ ও শিশুকে বিশেষ বন্দীশালায় আটকে রেখে নির্মম নির্যাতন চালাচ্ছে।

তিনি বলেন, মুসলমানদের জোর করে কমিউনিষ্ট দীক্ষা নিতে বাধ্য করছে। চীন সরকারের মানবতাবিরোধী অপকর্ম বন্ধে বিশ্ব বিবেককে জাগ্রত হতে হবে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে সোচ্চার হতে হবে। মুসলিম নির্যাতন বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। চীনে জাতিসংঘের পক্ষ থেকে তদন্ত টিম পাঠিয়ে চীনকে জবাবদিহিতার আওতায় আনতে হবে।

তিনি আরও বলেন, জাতিসংঘ মুসলমানদের জন্য কোনো ভূমিকা রাখবে না। মুসলিম জাতিসংঘ গঠন করে নির্যাতিত মুসলিমদের পক্ষে দাঁড়াতে হবে। তিনি মুসলিম সেনাবাহিনী গঠনের প্রস্তাব করায় এরদোগানকে ধন্যবাদ জানিয়ে মুসলমানদের নেতৃত্ব দেয়ার আহ্বান জানান।

আজ শুক্রবার বাদ জুমআ বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটে ফিলিস্তিনে ও চীনের উইঘুর মুসলিম নির্যাতনের প্রতিবাদে আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

দলের ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলমের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, উত্তর সভাপতি প্রিন্সিপাল মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ, আলহাজ্ব আব্দুর রহমান, আলহাজ্ব আলতাফ হোসেন, মাওলানা এবিএম জাকারিয়া, মাওলানা আরিফুল ইসলাম, ডা. শহিদুল ইসলাম, মুফতি ফরিদুল ইসলাম, মুফতি মাসউদুর রহমান, এইচএম সাইফুল ইসলাম, মাওলানা বাছির উদ্দীন মাহমুদ, যুবনেতা ইলিয়াস হাসান ও আল আমীন সিদ্দিকী প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন আলহাজ্ব আব্দুল আউয়াল, মাওলানা ছিদ্দিকুর রহমান, অধ্যাপক ফজলুল হক মৃধা, মাওলানা ফখরুল ইসলাম, ইঞ্জি. গিয়াস উদ্দিন পরশ, ডা. মজিবুর রহমান, মুহা. নাজমুল ইসলাম, আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন জাহাঙ্গীর আলম।

সমাবেশ শেষে একটি বিশাল মিছিল বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

মাওলানা মাদানী বলেন, ভোট ডাকাতি করে বিজয় উৎসব সভ্য দেশে অনুষ্ঠিত হতে পারে না। এটা জাতির জন্য লজ্জাজনক। তিনি দল নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে পুনঃনির্বাচন দাবী করেন।

বিশেষ অতিথি মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ বলেন, ইসরাইল ফিলিস্তিনে স্বাধীনতা আন্দোলনকে স্তিমিত করার জন্য আন্তর্জাতিক রীতিনীতি ও মানবাধিকার লঙ্ঘন করে চলছে। ইসরাইলের জঘন্য ও অমানবিক আচরণের বিরুদ্ধে বিশ্ব মুসলিমকে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।

সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, ইসলাম ধর্মকে বিকৃত করে কমিউনিষ্ট বানানোর অপচেষ্টা চালাচ্ছে। নামাজ, রোজা পালন ও কুরআন শিখতে দিচ্ছে না। মুসলমানদের ধর্মীয় অধিকার খর্ব করে চীন নজির বিহীন জুলুমের দৃষ্টান্ত স্থাপন করছে।

আরআর