বুধবার, ২৩ মে ২০১৮

ভােগান্তি কমাতে হজযাত্রীদের প্রশিক্ষণ দেয়ার চিন্তা করছে সরকার

OURISLAM24.COM
এপ্রিল ২৬, ২০১৮
news-image

আবদুল্লাহ তামিম: এবার বাংলাদেশ থেকে হজে যাবেন ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন। চলতি বছর সৌদি আরবে বাংলাদেশি হজযাত্রীদের ভােগান্তি কমাতে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনার সব হজযাত্রীকে প্রশিক্ষণ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়।

দেশের এবার ৬৪টি জেলায় এ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। গতকাল মন্ত্রণালয় থেকে এ তথ্য জানা  গেছে। এদিকে হজযাত্রীদের নিবন্ধনের সময়সীমা কয়েকদফা বৃদ্ধির পর সময় নির্ধারণ করা হয়েছিল গতকাল বুধবার রাত ৮টা পর্যন্ত।

এ সময়ের মধ্যে বেসরকারি ব্যবস্থাপনার ১ লাখ ১৬ হাজার ৬০০ হজযাত্রী তাদের নিবন্ধন শেষ করেছেন। এ ছাড়া সরকারি ব্যবস্থাপনার অধিকাংশ হজযাত্রী নিবন্ধন করায় নিবন্ধন কার্যক্রম বন্ধ ঘােষণা করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

অন্যদিকে ২০১৮ সালের সরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রীদের জন্য সৌদি আরবের মক্কা ও মদিনায় বাড়িভাড়া সম্পন্ন করা হয়েছে। এ ছাড়া বেসরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রীদের জন্য বাড়িভাড়া মে মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে সম্পন্ন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, এবার হজে যাবেন ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন। এর মধ্যে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১ লাখ ১৬ হাজার ৬০০ এবং মােনাজ্জেম ৩ হাজার ৪০০ সহ মােট ১ লাখ ২০ হাজার।

বেসরকারি হজযাত্রীদের নিবন্ধনের সময়সীমা ছিল যাবেন গতকাল বুধবার রাত ৮টা পর্যন্ত। কিন্তু বিকাল সাড়ে ৫টার আগেই নিবন্ধন ৭ হাজার শেষ করেন হজ গমনেচ্ছুকরা।

অন্যদিকে সরকারি ব্যবস্থাপনায় যাবেন ৭ হাজার ব্র ব্যবস্থায় ১৯৮ জন। তাদের মধ্যে গতকাল বিকাল পর্যন্ত ৬ হাজার ২১৫ জন নিবন্ধন শেষ করেছেন। সরকারি ব্যবস্থাপনার উল্লেখযােগ্যসংখ্যক হজযাত্রী নিবন্ধন করায় হজ প্যাকেজ ১ এর নিবন্ধন কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়।

তবে প্যাকেজ-২ এর নিবন্ধন করার সুযােগ রাখা হয়েছে। কর্মকর্তারা বলেছেন, বেসরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রীদের নিবন্ধন শেষ হয়েছে। এখন এজেন্সিগুলাে। তাদের হজযাত্রী ও এজেন্সির যাবতীয় তথ্য সৌদি আরবে পাঠাবেন।

জানা গেছে, সৌদি সরকারের নির্দেশনামতে বাংলাদেশি প্রতিটি হজ এজেন্সির ন্যূনতম হজযাত্রী থাকতে হবে ১৪৬ জন। এর কম হলে কোনাে এজেন্সি হজকার্যক্রমে অংশ নিতে পারবে না। কিন্তু নিবন্ধনের শেষ সময় পর্যন্ত ৩৯টি হজ এজেন্সি ১৪৬ জনের কোটা পূরণ করতে পারেনি।

এসব এজেন্সিকে অন্য এজেন্সির সঙ্গে সমন্বয় করে হজযাত্রী সৌদি আরবে পাঠানাের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র পাবলিক রিলেশন অফিসার মােহাম্মদ আনােয়ার হােসাইন বলেন, সরকারি হজযাত্রীদের বাড়িভাড়া সম্পন্ন করতে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মাে, আনিছুর রহমানের নেতৃত্বাধীন ৮ সদস্যের একটি দল গত ১০ এপ্রিল সৌদি আরব গেছে। শেষে খবর পাওয়া পর্যন্ত সরকারি হজযাত্রীর জন্য মক্কা ও মদিনায় বাড়িভাড়া করা হয়ে গেছে।

আরো পড়ুন- ৬৪ বছর আগের হজ্বের কিছু দূর্লভ ছবি (১৯৫৩)