২০১৮-০৪-০৬

রবিবার, ২০ জানুয়ারি ২০১৯

আবারো গাছের সঙ্গে বেঁধে গৃহবধূ পেটাল স্বামী-ভাসুর

OURISLAM24.COM
news-image

আওয়ার ইসলাম : স্বামী ও তার পরিবারের অসহ্য যন্ত্রণায় অতীষ্ঠ হয়ে আত্মহত্যার হুমকি দিলে স্ত্রীকে স্বামী ও ভাসুর মিলে পেটাল গাছের সঙ্গে বেঁধে।

সাতক্ষীরায় সদর উপজেলা দহকুলায় স্ত্রী আনোরার সঙ্গে এমন অমানুষিক আচরণ করে স্বামী কাবিদ ওরফে কাবিল ও ভাসুর হাবিদ ওরফে কাবিল।

ঘটনার অভিযোগ থানায় দায়ের হলে পুলিশ আটক করে কাবিদ ও হাবিদকে। আর আহত গৃহবধূ আনোয়ারাকে ভর্তি করা হয় সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে।

যৌতুকের জন্য স্ত্রী আনোয়ারাকে প্রায়ই মারধর করত স্বামী কাবিদ, জানান স্থানীয়রা। ছোট ছোট ইস্যু নিয়েও চলত এ নির্যাতন। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আজ সকালেও সামান্য খাবার নিয়ে কাবিদ চটে গিয়ে মারধর করে আনোয়ারাকে।

’ইসলামি শিক্ষা ছাড়া নারী নির্যাতন বন্ধ সম্ভব নয়’

আনোয়ারা স্বামীর প্রতিবাদে বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করার হুমকি দেয়। স্ত্রীর মুখে এমন কথা শুনে স্বামী তার ভাইকে নিয়ে আনোয়ারাকে উঠোনের আমগাছে বেঁধে  রড-লাঠি দিয়ে বেধড়ক পেটায়। আনোয়ারার চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে এলেও দুই ভাইয়ের দাপটে তারা আনোয়ারাকে রক্ষা করতে গিয়েও ব্যর্থ হয়।

অবস্থা বেগতিক দেখে স্থানীয় ইউপি সদস্য কামরুল ইসলামকে খবর দেয়া হয়। স্থানীয় এ মেম্বার এসে পুলিশ ডেকে আনোয়ারাকে বাঁধন মুক্ত করেন এবং হাবিদ-কাবিদকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

সাতক্ষীরা সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শরিফুল ইসলাম জানান, গৃহবধূর স্বামী ও ভাসুরকে আটক করে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তিনি আরো জানান, এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এসএস

আরো পড়ুন : ‘প্রেম করা বন্ধ করো, নারী নির্যাতন বন্ধ হয়ে যাবে’