২০১৮-০৪-০৪

রবিবার, ২০ জানুয়ারি ২০১৯

কী অপরাধ ছিল আফগানের হাফেজদের? বিশ্বকে আল্লামা বাবুনগরীর প্রশ্ন

OURISLAM24.COM
news-image

আওয়ার ইসলাম: আফগানিস্তানের কুন্দুস প্রদেশের দাশ্তেআর্চি জেলার পাঠান বাজার এলাকায় মাদরাসায়ে উমরিয়্যাহ এর হাফেজ ছাত্রদের সনদ প্রদান ও দস্তারবন্ধী অনুষ্ঠান চলাকালে আমেরিকার সন্ত্রাসী বিমান হামলায় শতাধিক আফগান নিরীহ শিশু-কিশোর হাফেজে কুরআন শাহাদাত বরণ করেছেন।

এই বর্বরতম হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী

আজ এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, বিশ্বসন্ত্রাসের মোড়ল আমেরিকার প্রতি ধিক্কার ও ঘৃনা জানাচ্ছি। আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী জালিমদের হাতে শাহাদাত বরণকারী আফগানিস্তানের মজলুম শহীদ পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি। হাফেজদের অনুষ্ঠানে বিমান হামলায় ঘটনায় আমরা শোকাহত ও মর্মাহত।

আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী বিশ্ব বিবেকের কাছে প্রশ্ন করে বলেন, কি অপরাধ ছিল এই নিষ্পাপ শিশু হাফেজদের? এত ব্যাপক শিশু হত্যা অতীতে দেখিনি।

তিনি বলেন, কিছুদিন আগে পাকিস্তানে এক মালালা আহত হওয়ায় সারা বিশ্বের মানবতার ধ্বজাধারীরা চেচিয়ে ওঠেছিল। ফ্রান্সের একটি নাইট ক্লাবে বোমা হামলা হলে তখন বিশ্ব মিড়িয়া তাদের ঘুম হারাম করে ফেলেছিল। অথচ আজ আফগানিস্তানে শতাধিক হাফেজ শিশুকে নির্মমভাবে হত্যা করার পরও তারা বোবা শয়তান হয়ে বসে আছে।

মানবাধিকারের বুলি আওড়িয়ে মুসলমানদের রক্ত নিয়ে এরা হোলি খেলায় মেতে উঠেছে। এরা মানবতার ধোঁকাবাজ প্রবক্তা। বিশ্ব সন্ত্রাসী আমেরিকার বিরুদ্ধে মুসলিম মিল্লাতকে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

তিনি বলেন, আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জালিম ট্রাম্প মার্কিন মুল্লুকের ক্ষমতায় এসে মানবতার বিরুদ্ধে একের পর এক জঘন্যতম বর্বর লোমহর্ষক ঘটনার জম্ম দিয়ে যাচ্ছে। কুন্দুজ ট্রাজেডি তার বাহিনীর নতুন সংযোজন।

তিনি বিশ্ব মুসলিমদের প্রতি কুন্দুজের শহীদ হাফেজ শিশুদের রক্তের প্রতিটি ফোটার বদলা নেওয়ার জন্য শহাদাতের তামন্না নিয়ে মার্কিন সাম্রাজ্যবাদী গোষ্ঠীকে প্রতিহত করার আহবান জানান।

তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে, আল্লাহর পবিত্র কুরআনের হাফেজদের শাহাদাতে রক্তের বিনিময়ে আফগানিস্তানের মাঠিতেই বিশ্ব সন্ত্রাসী আমেরিকার কবর রচিত হবে এবং আল্লাহর কুরআনের বিধান জারী হবে ইনশাআল্লাহ।

আরও পড়ুন: ‘কুরআনে হাফেজদের রক্তে ভেসে যাচ্ছিল মেঝে’