রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

ব্যবসা বাড়াবে ফেসবুক পেজ; খুলবেন যেভাবে

OURISLAM24.COM
জানুয়ারি ২১, ২০১৮
news-image

জনপ্রিয় সামাজিক মাধ্যম হিসেবে সবার শীর্ষে ফেসবুক। ফেসবুক পেজের মতো দারুণ একটি অপশন থাকায় মাধ্যমটির জনপ্রিয়তা নিয়মিত বাড়ছে। ফেসবুক আইডিতে বন্ধুর সংখ্যা নির্দিষ্ট থাকা কিংবা গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলো স্পন্সর পোস্টের মাধ্যমে সুযোগ না থাকলেও ফেসবুক পেজের মধ্যে এ সীমাবদ্ধতা নেই। ব্যক্তির ইমেজ, ব্যবসা সম্প্রসারণ কিংবা প্রতিষ্ঠানের প্রচারে ফেসবুক পেইজের বিকল্প নেই। ফেসবুক পেজ ব্যবহারের খুঁটিনাটি নিয়ে লিখেছেন নাদিম মজিদ।

কিভাবে পেজ খুলবেন
ফেসবুকে পেজ সহজে এবং বিনামূল্যে পেজ খোলা যায়। একটি পেজ খুলতে কয়েক মিনিটের বেশি লাগে না। এটি মোবাইল এবং কম্পিউটার থেকেও খোলা যায়। ফেসবুকে পেজ খুলার জন্য কয়েকটি অপশন রয়েছে। যেমন কম্পিউটার থেকে লগআউট করার জন্য উপরের লাইনে কর্নারে ক্লিক করলে পাওয়া যাবে।
আরেকটা অপশন হতে পারে, যে কোনো একটি ফেসবুক পেজে যাওয়া। যেমন কয়েকদিন আগে এক কোটি লাইক হওয়া আওয়ার ইসলাম পেজে গেলে দেখতে পাবো সবুজ রঙয়ে লেখা ‘Create A Page’।

সেখানে ক্লিক করলে নতুন একটি পেজ আসবে। আপনি কি ধরনের পেজ তৈরি করতে চান, তার কিছু চিহ্ন রয়েছে এতে। সে অনুসারে আপনি বাছাই করবেন। যেমন আপনি এলাকার কোনো দোকানদার হলে আপনি লোকাল বিজনেস অপশনটি বাছাই করবেন।

এবার আপনাকে পেইজের জন্য একটি নাম বাছাই করতে হবে। নাম পছন্দ করার সময় খেয়াল রাখবেন যেন মানুষ ফেসবুকে খুঁজে এমন নাম হয়। পাশাপাশি পেজটি কোন ক্যাটাগরির অন্তর্ভুক্ত হবে, ঠিকানা এবং ফোন নম্বরও দিবেন। About সেকশনে আপনার পেজটি কি ধরনের তা লিখবেন। লেখার ক্ষেত্রে অবশ্যই বাংলা বা ইংরেজির যে কোনো একটি ব্যবহার করবেন।

পেজ তৈরি সম্পন্ন করার জন্য আপনাকে একটি প্রোফাইল ছবি এবং একটি কভার ছবি নির্ধারণ করতে হবে। আপনি যদি কোনো স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের জন্য পেজ তৈরি করতে চান, প্রোফাইল ছবির ক্ষেত্রে সংগঠনের লোগো ব্যবহার করতে পারেন। কভার ছবির ক্ষেত্রে স্বেচ্ছাসেবকদের গ্রুপ ছবি কিংবা কোনো কার্যক্রমের ভালো কোনো ছবি ব্যবহার করতে পারেন।

১৭০/১৭০ পিক্সেলের প্রোফাইল ছবি এখানে সবচেয়ে ভালো ফুটবে। মনে রাখবেন, কম্পিউটারে যে ছবি ১৭০/১৭০ পিক্সেলের দেখা যায়, স্মার্টফোনে ১২৮/১২৮ পিক্সেল এবং বেশিরভাগ ফিচার ফোনে ৩৬/৩৬ পিক্সেল দেখা যাবে।

কম্পিউটার থেকে আপলোড দেয়ার সময় কভার ফটোর প্রস্থে ৮২০ পিক্সেল এবং লম্বায় ৩১২ পিক্সেল হতে হবে। যা স্মার্টফোন থেকে প্রস্থে ৬৪০ পিক্সেল এবং লম্বায় ৩৬০ পিক্সেল দেখাবে এবং ফিচারের ফোনের ক্ষেত্রে তা প্রস্থে ৩৯৯ পিক্সেল এবং লম্বায় ১৫০ পিক্সেল দেখাবে। পিএনজি ফরমেটে লোগো বা লেখাসমৃদ্ধ ছবি আপলোড দিতে তা সবচেয়ে ভালো ফুটে থাকে। প্রোফাইল ছবি বা কভার ছবির আকার বেশি হলে তা আপলোড দেয়ার সময় সমন্বয় করে নিতে হবে।

ফেসবুক পেজ তৈরির প্রধান উদ্দেশ্য কোনো একটি কর্মকান্ডকে নিয়মিতভাবে তুলে ধরা। এটি দিয়ে কোনো ব্যক্তির নিয়মিত কর্মকান্ড তুলে ধরবে, আবার কোনো ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রমও তুলে ধরা যাবে। সে সম্পর্কে কিছু টিপস তুলে ধরা হলো : 

কল টু অ্যাকশন
আপনার ফেসবুক পেইজে একজন ভিজিট করতে আসলে সে আপনার পোস্টগুলো দেখবে। আপনার পেজের কার্যক্রম দেখে অনেকে আপনার সাথে যোগাযোগ করতে চাইবে। তাদের জন্য মূলত কল টু অ্যাকশন বাটন। আপনি আপনার পেইজের উপরে একটি কল টু অ্যাকশন বাটন যোগ করতে পারেন। যেমন কোনো ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের পেজের ক্ষেত্রে তাদের ওয়েবসাইটের ঠিকানা থাকতে পারে, আবার কোনো ফটোগ্রাফি প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানের মোবাইল নম্বর থাকতে পারে। পেইজে কল টু অ্যাকশন বাটন যোগ করা বেশ সহজ এবং কয়েক ক্লিকেই তা করা যায়। কল টু অ্যাকশন বাটন যোগ করার পরে তা দেখতে কেমন হবে, এ জন্য টেস্ট বাটন রয়েছে।

ফেসবুক আইডি থেকে পেজ
অনেকে নিজের নামে পেজ তৈরি করতে চান। আগে তাদেরকে আালাদা করে নিজের নামে পেজ তৈরি করতে হত। এখন বিষয়টি অনেক সহজ করা হয়েছে। সরাসরি ফেসবুক প্রোফাইল থেকে পেজ খোলা যায়। এক্ষেত্রে প্রোফাইলের নামটিই পেজে থাকবে। কভার ফটো এবং প্রোফাইল ফটোও একই থাকবে।
https://www.facebook.com/pages/create/migrate লিংক ব্যবহার করে আপনি নিজের আইডি থেকে সরাসরি পেইজ তৈরি করতে পারেন।

পেজ প্রকাশ করুন
যখন আপনি মনে করবেন, আপনার পেজ সম্পূর্ণ প্রস্তুত। তখন আপনি পেজটি প্রকাশ করবেন।যদি আপনার পেজে কোনো পরিবর্তনের প্রয়োজন হয়, তাহলে সেটিংস অপশনে গিয়ে যে কোনো সময় পরিবর্তন করতে পারবেন।পোস্ট করা শুরু করুন যখন মনে হবে, আপনার পেজের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো দেয়া হয়েছে, তখন আপনি পেজটি প্রমোট করতে পারেন। আপনার বন্ধুদেরকে পেজে লাইক দেয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানাতে পারেন। আপনার টাইমলাইনে পেজটি সম্পর্কে কিছু লিখে তার লিংক শেয়ার দিতে পারেন। আপনার ব্যবসা বা কাজ সম্পর্কে পোস্ট, লাইভ ভিডিও, বিশেষ অফার দিতে পারেন। কোনো পোস্টকে হাইলাইট করতে চাইলে পোস্টকে পিন করতে পারবেন। কোনো পোস্টকে কার্যকর করার জন্য আপনি ছোট, দেখতে সুন্দর এমন ছবি আকারে প্রকাশ করতে পারেন।

ক্রিয়েট অ্যান অফার
আপনি ব্যবসাতে নতুন এসেছেন। আপনার এলাকায় নতুন মুদি দোকান চালু করেছেন। এক্ষেত্রে আপনি গ্রাহক ধরার জন্য নতুন কোনো অফার দিতে পারেন। যেমন ১০০ টাকার বাজার করলে একটি সার্ফ এক্সেল মিনি ফ্রি। আপনার পেইজে এ ধরনের পোস্ট দিলে এবং তা প্রমোশন করলে তা আপনার ব্যবসা প্রসার করতে কার্যকর হবে।

মেসেজ অপশন চালু করুন
ফেসবুক মেসেঞ্জারের সাথে আপনার পেজ সংযুক্ত করা থাকে। তাই আপনি গ্রাহকদের সাথে ওয়ান-টু-ওয়ান যোগাযোগ করতে পারেন। আপনার পেজে মেসেজ অপশন চালু করলে আপনার ব্যবসা সম্পর্কে সহজে জানতে পারবে এবং ফিডব্যাক দিতে পারবে। যেমন আপনি পথশিশুদের নিয়ে একটি স্কুল পরিচালনা করেন। আপনার ফেসবুক পেজ থেকে যে কেউ জানতে চাইতে পারে, পরবর্তী সময়ে কোনদিন আপনাদের স্কুলের ক্লাস চালু থাকবে এবং সে অনুসারে সে স্কুলটি ভিজিট করতে আসতে পারে। এতে আপনার গ্রাহকদের সাথে আপনার সম্পর্ক বৃদ্ধি পাবে। যে কোনো সময়ে যে কেউ আপনার পেইজে মেসেজ পাঠাতে পারবে, আপনিও সে অনুসারে উত্তর দিতে পারবেন। কোনো কারণে আপনি উত্তর দিতে না পারলেও পরে পেজে প্রবেশ করলে ইনবক্সে তা মেসেজ আকারে থাকবে। কল টু অ্যাকশন বাটন ব্যবহার করে আপনি সেন্ড মেসেজ অপশন চালু করতে পারবেন।

সময় মেনে চলুন
ফেসবুক পোস্টের মতো পেজেও পোস্ট দেয়ার ক্ষেত্রে সময় মেনে চলুন। যে সময়ে ফেসবুকে ব্যবহারকারী বেশি থাকে, সে সময়ে পোস্ট করুন। যেমন রাত একটায় ব্যবহারকারী কম থাকে, এসময় পেজে পোস্ট দিলে এটি কম মানুষের কাছে যাবে। দুপুর দুইটা বা রাত আটটায় পোস্ট দিতে সাড়া বেশি পাওয়া যায়।
আপনার পেজের ফলাফল সম্পর্কে জানুন

ফেসবুক পেজের ফলাফল তার অ্যাডমিনরা জানতে পারেন। আপনি যে ছবি বা পোস্ট দিলেন, তা কতজন মানুষের কাছে গেল, কতজন লাইক দিল তা জানতে পারবেন পেজের ইনসাইট অপশন থেকে। আরটিভি।