২০১৭-১২-২০

রবিবার, ২০ জানুয়ারি ২০১৯

সৌদি আরবের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বাজেট ঘোষণা

OURISLAM24.COM
news-image

আওয়ার ইসলাম
ডেস্ক

ভিশন ২০৩০ এর লক্ষ্য সামনে রেখে সৌদি রাজ্যের ইতিহেসর সবচে’ বড় বাজেট ঘোষণা করলেন বাদশাহ সালমান। ২০১৮ অর্থবছরের জন্য মঙ্গলবার বাজেট ঘোষণা করেছে।

গত মঙ্গলবার  রাজধানী রিয়াদের ইয়ামামা রাজপ্রাদাসে অনুষ্ঠিত বিশেষ বৈঠকের ভাষণে বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ বলেন, তেলের দরপতনের মধ্যেও সৌদি ইতিহাসের সবচেয়ে বড় অর্থবাজেট এটি।

অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, জনগণের বোঝা লাঘব, সম্ভাব্য চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা এবং ব্যক্তিগত খাতের সম্প্রসারণের কথা মাথায় রেখে এ বাজেট করা হয়েছে। এতে ৫০ ভাগ তেল নির্ভরতা কমিয়ে আনা হয়েছে এবং ভিশন ২০৩০ বাস্তবায়নে ১২টি বড় প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে।

বাজেটের শাহি ফরমান পড়ে শোনান মন্ত্রিসভার সচিব আবদুর রহমান বিন মুহাম্মদ বিন আয়াফ। তিনি বলেন, এতে বরাদ্দ করা হয়েছে ৯৭৮ বিলিয়ন সৌদি রিয়াল, যা গত বছরের চেয়ে ৫.৬ শতাংশ বেশি। এ বাজেটকে দেশটির ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বাজেট বলে ঘোষণা করেছেন বাদশাহ সালমান।

২০১৭ অর্থবছরে বাজেটে বরাদ্দ ছিল ৯২৬ বিলিয়ন সৌদি রিয়াল। ২০১৭ সালের তুলনায় তা ১২.৫ শতাংশ বেশি (৬৯৬ বিলিয়ন সৌদি রিয়াল)। এ বছর ঘাটতি ধরা হয়েছে ১৯৫ বিলিয়ন রিয়াল।

চলতি বছরে যা ছিল ২৩০ বিলিয়ন। পণ্য ও সেবা থেকে প্রত্যাশিত রাজস্ব আয় ৮৫ বিলিয়ন রিয়াল হবে বলে ধরা হয়েছে।

বাজেটের অর্থের সংস্থান হবে ৫০ শতাংশ তেল বিক্রি থেকে, ৩০ শতাংশ ছাড়া অন্যান্য আয় থেকে, ১২ শতাংশ ঋণ থেকে এবং ৮ শতাংশ সরকারি অফিসের আয় থেকে।

সৌদি অর্থ মন্ত্রণালয় বলছে, ৭৮৩ বিলিয়ন সৌদি রিয়াল রাজস্ব আয় হবে বলে তারা ধারণা করছেন। ২০১৭ সালের তুলনায় তা ১২.৫ শতাংশ বেশি (৬৯৬ বিলিয়ন সৌদি রিয়াল)। এ বছর ঘাটতি ধরা হয়েছে ১৯৫ বিলিয়ন রিয়াল। চলতি বছরে যা ছিল ২৩০ বিলিয়ন। সূত্র : আল আরাবিয়া