বুধবার, ১৫ আগস্ট ২০১৮

ভালোবেসে বিয়ে করার পর যা হলো

OURISLAM24.COM
ডিসেম্বর ১৫, ২০১৭
news-image

আওয়ার ইসলাম, ডেস্ক: ভালোবেসে বিয়ে করায় চাকরি হারিয়েছেন নব দম্পত্তি দুই সহকর্মী। তারা দুজনই একটি স্কুলের শিক্ষক ছিলেন।

জানা যায়, বিয়ের এক মাস আগে দুজনেই ছুটির জন্য দরখাস্ত করেছিলেন। একই স্কুলের দু’টি পৃথক বিভাগে কর্মরত ছিলেন তারা।

স্কুল কর্তৃপক্ষ তাদের আবেদন মঞ্জুরও করেন । কিন্তু ঠিক বিয়ের দিন জানা যায়, স্কুল কর্তৃপক্ষ দু’জনকেই বরখাস্ত করেছেন।

নব দম্পত্তিকে বরখাস্ত করার কারণ ব্যাখ্যা করে স্কুল কর্তৃপক্ষ জানায়, তারা ‘প্রেম’ করে বিয়ে করেছেন। স্কুলের মধ্যে শিক্ষক-শিক্ষিকার ‘রোমান্টিক সম্পর্ক’ শিক্ষার্থীদের মাঝে বিরূপ প্রভাব ফেলবে।

ঘটনাটি ঘটেছে জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলার প্যামপর মুসলিম এডুকেশনাল ইনস্টিটিউট নামের একটি স্কুলে। স্কুলটিতে ছেলে এবং মেয়েদের জন্য দু’টি পৃথক বিভাগ রয়েছে। সেখানেই বিগত কয়েক বছর ধরে কাজ করছেন তারিক ভাট এবং সুমাইয়া বাসির নামে ওই শিক্ষক-শিক্ষিকা।

গত ৩০ নভেম্বর তাদের বিয়ের দিন ঠিক হয়। স্কুল কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে এক মাস আগেই ছুটির আবেদন করেন তারা। সেই আবেদন মঞ্জুরও হয়। কিন্তু পরবর্তীতে বেঁকে বসেন স্কুল কর্তৃপক্ষ।

তবে কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্তে বিস্ময় প্রকাশ করে শিক্ষক তারিক বলেছেন, প্রেম নয়, বরং দেখাশোনা করেই বিয়ে হয়েছে আমাদের। বিষয়টি গোটা স্কুলই জানে। বিয়ে ঠিক হওয়ার পর সুমায়া স্কুলের কর্মীদের জন্য পার্টিও দিয়েছিল।

এ বিষয়ে মুখ খোলেননি স্কুলের প্রিন্সিপাল।স্কুলের চেয়ারম্যান বাসির মাসুদির তরফ থেকেই  আসছে  যতো অভিযোগ। তার দাবি, বিয়ের আগেই রোমান্টিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন ওই শিক্ষক-শিক্ষিকা। যা শিক্ষার্থীদের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। এজন্য তাদের বরখাস্ত করা হয়েছে।

এদিকে স্কুলের সিদ্ধান্ত যা-ই হোক না কেন নিজেদের সিদ্ধান্ত অটল ওই দম্পতি। তারা বলছেন, আমরা বিয়ে করেছি। এটাই ঠিক সিদ্ধান্ত। কোনও অপরাধ বা পাপ করিনি।

এসএস/