বৃহস্পতিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭

ads

কওমি শিক্ষার্থীদের জন্য মিসরে উচ্চতর ধর্মীয় প্রশিক্ষণের সুযোগ, আবেদন করবেন যেভাবে

OURISLAM24.COM
নভেম্বর ২২, ২০১৭
news-image

আবরার আবদুল্লাহ
বিশেষ প্রতিবেদক

মিসরে অনুষ্ঠেয় ইমাম ও ধর্মীয় নেতাদের উচ্চতর ধর্মীয় প্রশিক্ষণের জন্য আবেদনপত্র চেয়ে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ। আবেদন করতে পারবেন কওমি মাদরাসা থেকে দাওরা হাদিস পাশ শিক্ষার্থীরাও। তাদের জন্য প্রয়োজন হবে কোনো জামে মসজিদ কমিটি বা ইসলামপ্রচারক সংস্থার প্রত্যয়নপত্র প্রয়োজন হবে।

আগামী ১ জুলাই ২০১৮ সালে এ কোর্স শুরু হবে। চলবে দুই মাস।

আবেদন করা যাবে ৩০ নভেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত। ২০ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখ বাছাই পরীক্ষা নিবে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ।

আবেদনের পূর্ব শর্ত
১. প্রার্থীকে অবশ্যই বাংলাদেশের কোনো মসজিদের ইমাম ও ধর্মপ্রচারক হতে হবে।

২. আরবি ভাষায় দক্ষ হতে হবে। আরবি বলা, লেখা ও কথোপথনের যোগ্যতা থাকতে হবে।

৩. প্রার্থীকে দাওরায়ে হাদিস বা কামিল বা কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইসলামিক স্টাডিজ বা আরবি ভাষায় মাস্টার্স থাকতে হবে।

৪. পূর্বে অংশগ্রহণকারী আবার অংশগ্রহণ করতে পারবে না।

যে সুবিধা পাওয়া যাবে
১. কোনো প্রকার কোর্স লাগবে না।

২. কোর্স চলাকালীন সময়ে থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা কর্তৃপক্ষ করবে।

৩. তবে যাওয়া আসার বিমানভাড়া প্রার্থীকে বহন করতে হবে।

যেভাবে আবেদন করবেন
ইসলামি ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের ওয়েবসাইট (www.islamicfoundation.gov.bd) বা দীনি দাওয়াত ও সংস্কৃতি বিভাগ থেকে ফরম সংগ্রহ করে তা পূরণ করে প্রয়োজনীয় নথিপত্র সংযুক্ত করে আগামী ৩০.১১.২০১৭ তারিখ বিকেল ৫.০০ মধ্যে পৌছাতে হবে।

আবেদনপত্রের সঙ্গে যা যা পাঠাতে হবে
১. নিখুঁতভাবে পূরণকৃত আবেদনপত্র।

২. পাসপোর্ট সাইজের ৩ কপি সদ্য তোলা ছবি।

৩. শিক্ষাগত যোগ্যতার সত্যায়িত সনদ।

৪. মসজিদ কমিটি কর্তৃক ইমামতির এবং ইসলাম প্রচার সংক্রান্ত সনদ

৫. ইংরেজিতে লেখা দুই কপি জীবনবৃত্তান্ত

৬. যে কোনো তফসিলি ব্যাংক থেকে ‘ইসলামিক ব্যাংক’ শিরোনামে ২০০ টাকার (অফেরতযোগ্য) পে-অর্ডার বা ব্যাংক ড্রাফট।

বাছাই পরীক্ষা
প্রার্থী নির্বাচনে আগামী ২০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য আর কোনো পত্র দেয়া হবে না। তবে কর্তৃপক্ষ পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তনের অধিকার রাখেন।

এ জাতীয় আরও খবর