বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭

ads

সৌদির নেতৃত্ব এখনই ছাড়বেন না বাদশাহ সালমান

OURISLAM24.COM
নভেম্বর ১৩, ২০১৭
news-image

হামিম আরিফ: ছেলে মুহাম্মদের হাতে ক্ষমতার ভার দিয়ে নিজে সরে যাওয়ার যে গুঞ্জন উঠেছিল বাদশা সালমানের এরকমটা নাকচ করে দিয়েছেন রিয়াদের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা। খবর ব্লুমবার্গ

ওই কর্মকর্তার ভাষ্য, বাদশাহ ফাহাদ ২০০৫ সালে অর্থাৎ তার মৃত্যু আগ পর্যন্তই ক্ষমতায় ছিলেন। বাদশা সালমানের ক্ষেত্রে এরকমই হতে পারে।

তিনি জানান, বাদশা সালমান স্বাস্থ্যগত এবং মানসিক দিক থেকে পুরোপুরি সুস্থ এবং স্বাভাবিক রয়েছেন। এছাড়াও রাজকাজ তিনি বেশ উপভোগও করছেন। আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বাড়াতে বিভিণ্ন দেশ সফরও করছেন।

গত সপ্তাহে সৌদিতে শুরু হওয়া দুর্নীতি বিরোধী অভিযানে ২০১ জনকে আটক করা হয়েছে। দুর্নীতি বিরোধী অভিযানের প্রথম দিনেই ১১জন প্রিন্স, চারজন মন্ত্রী, বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী এবং সাবেক মন্ত্রীকে আটক করা হয়।

আটক হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে রয়েছেন, ধনাঢ্য ব্যবসায়ী প্রিন্স আলওয়ালেদ বিন তালাল, প্রিন্স মিতেব বিন আবদুল্লাহ এবং তার ভাই প্রিন্স তুর্কি বিন আবদুল্লাহ।

দুর্নীতি অভিযানের নামে ক্ষমতাধর প্রিন্সদের আটকের ঘটনায় নড়েচড়ে বসেছে সৌদি। বিশ্লেষকরা মনে করছেন ক্ষমতা কুক্ষিগত করতেই এ ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছেন ক্রাউন প্রিন্স। কিন্তু বাদশাহ সালমান এখনই সিংহাসন ত্যাগ করবেন না এমন খবরে সব ধরনের জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটেছে।

গত জুনে চাচাতো ভাইকে সরিয়ে ৩২ বছর বয়সী প্রিন্স সালমানকে ক্রাউন প্রিন্স করা হয়। তারপর থেকে ক্ষমতার শীর্ষে পৌঁছেছেন তিনি।

এদিকে, গত সপ্তাহে দুর্নীতির অভিযোগে প্রিন্স মিতেব বিন আবদুল্লাহকে ন্যাশনাল গার্ডের প্রধানের পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। ফলে ধারণা করা হচ্ছিল হয়তো খুব শিগগিরই সিংহাসনে বসতে চলেছেন ক্রাউন প্রিন্স মুহাম্মদ বিন সালমান।

গ্রেফতারকৃত সৌদি যুবরাজ এখন কী অবস্থায় আছেন?