মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭

ads

রাশিয়ার বুকে অনন্য ১০ মসজিদ

OURISLAM24.COM
অক্টোবর ২০, ২০১৭
news-image

তৌহিদুল ইসলাম প্রিন্স
ফিচার রাইটার

কমিউনিষ্ট রাষ্ট্র রাশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে মুসলিমদের বসবাস রয়েছে। তাদের অনন্য সুন্দর মসজিদগুলোও দেখার মতো। দৃষ্টি কাড়ে যে কারো। আরবিটিএইচ ডটকম রাশিয়ার ১০টি মসজিদ নিয়ে একটি প্রতিবেদন করেছে। আসুন দেখে নেই মসজিদ ও মসজিদের পরিচিতি।

১. বিশ্বের সর্ব উত্তরের মসজিদ নুরদা কামাল মদজিদ
উত্তর সাইবেরিয়ার এক শিল্প নগরী নরিলস্কে অবস্থিত। ১৯৯৮ সালে স্থাপনের পর বিশ্বের সর্ব উত্তরের মসজিদ হিসেবে এটি গিনেস বুকে স্থান পায়।

২. ইউরোপের দীর্ঘতম মিনার মস্কো ক্যাথেড্রাল মসজিদ
পুনঃনির্মাণ করে কেন্দ্রীয় মস্কো মসজিদ নামকরণ করা হয়। যা বর্তমানে ইউরোপের সর্বাপেক্ষা বড় মসজিদ। ছয় তলা এ মসজিদে ৭৯ মিটার লম্বা এবং ইউরোপের দীর্ঘতম মিনার রয়েছে।

৩. ইউরোপের একমাত্র নদীতীরবর্তী মসজিদ সেন্ট পিটারসবারগের নেভা
নদীর তৃতীয় বৃহত্তম বদ্বীপ পেট্রগ্রাডস্কি দ্বীপে ১৯১০ সালে স্থাপিত হয় নীল মসজিদ। মসজিদের গম্বুজ দেখতে অবিকল উজবেকিস্তানের সমরখন্দে অবস্থিত তঈমুর লং এর দরগার মত।

৪. ইউরোপের একমাত্র গ্রামীণ মসজিদ : ইউরোপের একমাত্র গ্রামীণ মসজিদ, চেচনিয়ার ঝাল্কা নামক গ্রামে এই অনন্য মসজিদটি অবস্থিত। মসজিদটি নামকরণ করা হয় গ্রাম্য প্রধান সুলতান দেলিমখানভ এর সম্মানে, তাকে ১৯৯০ সালে হত্যা করা হয়।এ মসজিদে একসাথে ৫ হাজার মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারে।

৫. রাশিয়ার প্রাচীনতম মসজিদ দাগেস্তান : রাশিয়ার প্রাচীনতম মসজিদ দাগেস্তান, ডারবেন্টের জুমা মসজিদ হল রাশিয়ার প্রাচীনতম মসজিদ যা খ্রিস্টপূর্ব ৭৩৩-৭৩৪ এর দিকে নির্মিত হয়েছিল। ইউনেস্কোর সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য হিসেবে এটি নিবন্ধিত।

৬. রাশিয়ার সর্বাপেক্ষা প্রশস্ত মসজিদ : ১৯৯৭ সালে দাগেস্তান মাখাচকালায় তুরস্কের অন্যতম সম্ভ্রান্ত এক পরিবার এই অভিজাত মসজিদ নির্মাণ করে। এট রাশিয়ার সর্বাপেক্ষা প্রশস্ত মসজিদ হিসেবে পরিচিত। এ মসজিদে একসাথে ১৭ হাজার মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারে।

৭. রাশিয়ার সর্ব সংখ্যক মিনারের মসজিদ : কাজানের বিখ্যাত মিনার মন্দিরের স্থলেই দাঁড়িয়ে আছে কুল শরীফ। যা ইভান গ্রজনীর শাসনামলে (১৫৪৭-৫২) ধ্বংস করা হয়েছিল। কাজান ক্রেম্লিন ঐতিহাসিক স্থাপত্য এলাকার অংশ এ মসজিদে রয়েছে ৫৫ মিটার লম্বা ৬টি মিনার।

২০০০ সালে বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান হিসেবে স্বীকৃতি পায় মসজিদটি। রাশিয়ার সর্ব সংখ্যক মিনারের মসজিদ হিসেবে ধরা হয়।

৮. আধুনিক নকশাকৃত মসজিদ: প্রধান মুসলিম অধ্যুষিত এলাকা বাশকরতস্তানে বিখ্যাত মসজিদ-মাদ্রাসা লালা-টিউলিপ নির্মিত হয় (১৯৯০-৯৮)। আধুনিক নকশা অনুযায়ী ৫৩ মিটার লম্বা মিনারযুগল মূল নামায-ভবন থেকে পৃথককৃত।

৯. রাশিয়ার একমাত্র সাদা রঙের মসজিদ : রাশিয়ার কাজানে অবস্থিত বুলগেরীয় মসজিদ হল রাশিয়ার একমাত্র সাদা মসজিদ। মুসলিম ঐতিহ্য অনুযায়ী সাদা হচ্ছে শুদ্ধতা এবং শান্তির প্রতীক।  পবিত্র হজ্জ পালনের সময়ও সাদা কাপড় পরিধান করেন মুসলমানরা। বুলগেরীয় মসজিদে আরও আছে পৃথিবীর বৃহত্তম কুরআন শরীফ; যা রত্নপাথর, স্বর্ণ, হীরক ও রৌপ্য দ্বারা খচিত।

১০. রাশিয়ার একমাত্র সরাসরি সম্প্রচারিত মসজিদ(২৪/৭ অনলাইন সম্প্রচার) : চেচনিয়া প্রজাতন্ত্রের প্রথম রাষ্ট্রপতি আখমাত কাদ্রিওভ ইস্তাম্বুলের বিখ্যাত নীল মসজিদের আদলে নির্মাণ করেন কেন্দ্রীয় চেচনিয়া মসজিদ।

এ মসজিদের বাইরে ওয়েব ক্যামেরা সংযুক্ত আছে যা ২৪ ঘন্টা সরাসরি সম্প্রচার করে।