বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারি ২০১৮

ads

জাকির নায়েকের সম্পদ জব্দের প্রক্রিয়া চলছে

OURISLAM24.COM
জুলাই ২৯, ২০১৭
news-image
আওয়ার ইসলাম : ভারতের রাষ্ট্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি (এনআইএ) জানিয়েছে, মুম্বাইয়ের বিশেষ আদালত জাকির নায়েককে অপরাধী সাব্যস্ত করেছে।  আদালতের রায়ে জাকিরের সম্পদ জব্দ করারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন ভারতীয় সংবাদমাধ্যম খবর দিয়েছে, নির্দেশ মেনে জাকিরের সম্পদ বাজেয়াপ্তরকরণের প্রক্রিয়া চলছে।
এনআইএ জানিয়েছে, সম্প্রতি মুম্বাইয়ের বিশেষ আদালত জাকির নায়েককে অপরাধী ঘোষণা করেছেন। সে কারণেই তাঁর সম্পদ বাজেয়াপ্ত করার প্রক্রিয়া চলছে। টাইমস অব ইন্ডিয়া বলছে, সন্ত্রাসে মদদ ও অর্থ পাচার সংক্রান্ত একটি মামলার রায়ে এই আদেশ দিয়েছেন আদালত। ভারতের ফৌজদারি কার্যবিধির (সিআরপিসি) ৮৩ ধারার আওয়তায় তাঁর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।
এনআইএ জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে ২০১৬ সালের ১৮ নভেম্বর একটি ফৌজদারি মামলা দায়ের করে। আর এই মামলার একদিন পরই ভারত সরকার জাকির নায়েকের প্রতিষ্ঠান ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনকে (আইআরএফ) বেআইনি ঘোষণা করে। জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে বক্তব্যের মাধ্যমে ঘৃণা ছড়ানো, সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন এবং বছরের পর বছর ধরে হাজার হাজার রুপি বিদেশে পাচার করার অভিযোগ তোলা হয়। এ ঘটনায় তাকে সমন পাঠানো হয়। তবে গ্রেফতার এড়াতে তিনি সৌদি আরবে অবস্থান করছেন।
উগ্রবাদ প্রচারে অর্থায়ন এবং জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধকরণের অভিযোগে গত ডিসেম্বরে নায়কের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। জানুয়ারিতে তার নামে জারি হয় সমন। এরপর আরও তিনবার সমন জারি হলেও আদালতে যাননি তিনি। উগ্রবাদ প্রচারের অভিযোগে এনআইএ-এর তলবেও সাড়া দেননি বিতর্কিত এই বক্তা।
তদন্তের স্বার্থে দেশে ফেরার নির্দেশ দেওয়া হলেও নায়েক ভারতে ফেরেননি। মামলায় বারবার তলবের পরও হাজির না হওয়ায় ভারতের বিতর্কিত টিভি বক্তা জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে চলতি জুলাইয়েই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়। এর কয়েকদিন পর বাতিল করা হয় তার পাসপোর্ট। এবার তাকে দোষী সাব্যস্ত করে সম্পদ জব্দের প্রক্রিয়া শুরু হলো। 
-এজেড