মঙ্গলবার, ২৭ জুন ২০১৭

মরক্কোয় বোরকা নিষিদ্ধের খবর কোথায় পেল মিডিয়া?

OURISLAM24.COM
জানুয়ারি ১২, ২০১৭
news-image

morocco_burka

রোকন রাইয়ান

আফ্রিকার দেশ মরক্কোয় বোরকা ও নেকাব নিষিদ্ধের খবর গত দুইদিন থেকে পাওয়া যাচ্ছে দেশীয় মিডিয়ায়। সেখানে বলা হচ্ছে দেশটিতে বোরকার বিক্রি ও উৎপাদন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করেছে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের সূত্রেই খবরটি প্রকাশ করেছেন সব মিডিয়া। তবে এখানে কিঞ্চিৎ ফাঁকিবাজি করা হয়েছে।

মূল নিউজটি গত ৯ জানুয়ারিই চোখে পড়েছিল একটি উর্দু দৈনিকে। খুব গুরুত্বপূর্ণ মনে না হওয়ায় অনুবাদ করা হয়নি। তবে এখনকার পরিস্থিতি আগে জানা থাকলে ওটা আগেভাগেই বড় করে প্রচার করতাম হয়তো। যেভাবে একাংশ কেটে নিউজটা প্রচার হচ্ছে তাতে মনে হবে বোরকা কোনো পোশাক না অন্য দেশেও এটা ব্যান করা উচিত।

মূল খবরটি হলো, মরক্কো নিরাপত্তাজনিত কারণে পুরো মুখ ঢাকে এমন বোরকা নেকাব নিষিদ্ধ করেছে। বোরকা বা নেকাব নিষিদ্ধ করেনি। কিন্তু বাংলাদেশি মিডিয়াগুলোতে মুখ ঢাকে এই শব্দটা ফেলে পুরো বোরকা নিষিদ্ধের খবর প্রচার করছেন। যা মূলত হলুদ সাংবাদিকতার মধ্যেই পড়ে।

মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক জনপ্রিয় পত্রিকা আল জাজিরা’র রিপোর্টটি দেখলেই বিষয়টি ক্লিয়ার হয়ে যায়। আন্তর্জাতিক অন্যান্য জনপ্রিয় পত্রিকাও বিষয়টি এভাবেই রিপোর্ট করেছে। এর মধ্যে জার্মানির ডয়েচেভেলেও রয়েছে।

aljazira2

আল জাজিরা নিউজটির শিরোনাম করেছে, ‘পুরো মুখ ঢাকে এমন বস্তু নিষিদ্ধ মরক্কোয়’। এখানে নারীরা পুরো মুখ বোরকায় ঢাকবেন না কাপড়ে তা নির্দিষ্ট করা হয়নি। বলা হয়েছে এখানে মুখ ঢেকে চলাফেরা করা যাবে না।

আল জাজিরা প্রতিবেদনের শুরুটা করেছে এভাবে,  Morocco has banned the production and sale of full-face veils apparently for security reasons, according to local media reports.dw

একইভাবে জার্মানির প্রসিদ্ধ পত্রিকা ডয়েচে ভেলে নিউজ করেছে, যার শিরোনাম করা হয়েছে পুরো মুখ ঢাকে এমন বস্তু নিষিদ্ধ

প্রসিদ্ধ গল্ফ নিউজও বলেছে পুরো মুখ ঢাকা নেকাব বা বোরকা নিষিদ্ধ। লিংক

এখান থেকে বিবিসি পুরোই পাল্টে গেল। লিংক । তারা লেখল, বোরকা নিষিদ্ধ করেছে মরক্কো। মুছে দেয়া হলো, পুরো মুখ শব্দটা।

পুরো নিউজের আর কোথাও ওটা বলা হলো না। বরং পুরো বডির বোরকা নিষিদ্ধ কথাটাও উল্লেখ করা হলো।

একইভাবে নিইউয়র্ক টাইমস বিবিসির ঢঙে নিউজ করল। পুরো বোরকা নিষিদ্ধ। লিংক। এই আদলে বদলে গেল বাংলাদেশের সংবাদপত্রের নিউজও।

জনপ্রিয় অনলাইন বিডিনিউজ২৪.কম শিরোনাম করেছে ‘মরক্কোয় বোরকার উৎপাদন ও বিক্রি নিষিদ্ধ’। তবে নিউজের একদম নিচে গিয়ে লিখেছে পুরো মুখ ঢাকার বিষয়টি। সঙ্গে পুরো শরীরও যুক্ত করেছে যা মূল সংবাদে নেই।

মজার ব্যাপার হলো দৈনিক যুগান্তর আল জাজিরার সূত্রে নিউজ করেছে অথচ সেখানেও মুখ ঢাকা বোরকার কথা আনা হয়নি। শিরোনাম করেছে, ‘মরক্কোয় নেকাব নিষিদ্ধ’।

মরক্কো একটি ইসলামি দেশ। সেখানে বোরকা নিষিদ্ধের খবর বেশ ইফেক্টেবল। দ্রুত ছড়িয়েছে এ কারণেই। কিন্তু মূল খবর রেখে এটা যে ছিল উদ্দেশ্যপূর্ণ প্রচারণা তা মানুষের সামনে আসেনি।

Marakish Me Burqa Tayar Kernay Or Baichnay Per Pabandi
মূলত এ ধরনের বোরকা নিষিদ্দ করা হয়েছে মরক্কোয়। তবে মুখ খোলা বোরকা পরতে পারবে

মূলত মরক্কোর নারীরা হিজাব করেই চলেন। তবে কয়েকটি অঞ্চলের নারীরা মুখের কোনো অংশই দেখা যায় না এমন বোরকা পরেন। সম্প্রতি অঞ্চলগুলোতে অপরাধীরা এটাকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে। অনেক পুরষ এসব পরে অপরাধকাণ্ডে জড়ায়। তাদের মুখ ঢাকা থাকায় পুলিশ তাদের ধরতে পারেন না। এ কারণেই দেশটিতে আইন করা হয়েছে মুখ খোলা রাখতে হবে।

বোরকা পরে বা হিজাব করে মুখ খোলা রাখার ব্যাপারে উপমহাদেশের আলেমরা এখনো একমত যে এটা বৈধ নয়। তব আফ্রিকা ইউরোপের মডারেট মুসলিমরা এটাকে অবৈধ মনে করেন না। বিতর্কিত ইসলাম প্রচারক ড. জাকির নায়েক ও শায়েখ আবদুল্লাহ বিন বাজও এটিকে অনুমতি দিয়েছেন।

এআরকে