বুধবার, ১৭ জানুয়ারি ২০১৮

ads

বয়স নয়, পশু জবাইয়ের সক্ষমতা বিবেচনা করা উচিত

OURISLAM24.COM
সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৬
news-image

qurbani_madrashaআওয়ার ইসলাম ডেস্ক: এ বছর কুরবানির পশু জবাইয়ে ১৮ বছরের কম বয়সী মাদরাসা ছাত্রদের ব্যবহার করা যাবে না বলে নির্দেশনা দিয়েছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। গত ১১ আগস্ট দেওয়া সেই ঘোষণায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে আলেম ও মাদরাসা ছাত্রদের মধ্যে।

তারা বলছেন, এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হলে কুরবানির পশু জবাইয়ের কার্যক্রম ব্যাহত হতে পারে। বয়স নয়, পশু জবাইয়ের ক্ষেত্রে সক্ষমতা এবং পশু জবাইয়ের কৌশল জানা জরুরি। যদি কোনো শিশুর ভেতর এ দুইয়ের সমন্বয় ঘটে তবে তাকে কুরবানিতে বাধা দেয়া উচিত নয়।

ঈদুল আজহা উপলক্ষে কুরবানির পশু জবাই ও বর্জ্য অপসারণ নিয়ে গত ১১ আগস্ট অনুষ্ঠিত এক সভায় স্থানীয় সরকার সচিব আব্দুল মালেক বলেন, ‘১৮ বছরের কম বয়সী মাদরাসার ছাত্রদের কুরবানির পশু জবাইয়ের কাজে ব্যবহার করা যাবে না। এই নির্দেশনা বাস্তবায়নের জন্য সিটি করপোরেশনগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সিটি করপোরেশনগুলো মাঠ পর্যায় বিষয়টি নজরদারি করবে।’

এই বিষয়ে হেফাজতের কেন্দ্রীয় মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন, ‘কুরবানির পশু জবাইয়ের ক্ষেত্রে বয়স নিয়ে শরিয়াহ আইনে কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। পশু জবাই করার নিয়ম ও পদ্ধতি আছে, সেটা জেনে যে কেউ জবাই করতে পারবে। ফলে জবাইয়ের নিয়ম জানা জরুরি। নিয়ম না জানলে বয়স যতই হোক পশু জবাই করতে পারবে না। মাদরাসার সব ছাত্র পশু জবাই করতে যায়ও না। যারা জবাই করতে সক্ষম তারাই পশু জবাই করে থাকে।’

এ প্রসঙ্গে শোলাকিয়া ঈদগাহের ইমাম মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ বলেন, ‘কুরবানির পশু জবাইয়ের জন্য ধর্মীয় নিয়ম আছে। কিভাবে কোন পদ্ধতি জবাই করা হবে সেটা মানা জরুরি। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় কী কারণে কেনও এ ধরনের সিদ্ধান্ত নিলো তা পরিষ্কার করা উচিত ছিল।’

সরকারি হিসেব মতে এ দেশে কওমি মাদরাসার সংখ্যা ১৪ হাজার ৯৩১টি। এই মাদরাসাগুলোতে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৪ লাখ। কুরবানির পশুর চামড়া বিক্রির অর্থ কওমি মাদরাসার আয়ের অন্যতম উৎস। শুধুমাত্র এই ঈদুল আজহার সময়ে কুরবানির পশুর চামড়া থেকে কমপক্ষে চার মাসের ব্যয় মেটানো সম্ভব হয় বলে জানিয়েছেন মাদরাসা সংশ্লিষ্টরা।

মাদরাসার জন্য চামড়া সংগ্রহ করতে শিক্ষকদের নেতৃত্বে ছাত্ররা বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে থাকেন। মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা কুরবানির পশু জবাই করে থাকেন, যাদের মধ্য ১৮ বছরের কম বয়সী ছাত্ররাও রয়েছে।

আরআর